সিরীয় বিদ্রোহীদের সঙ্গে মার্কিন নৌবাহিনীর সামরিক মহড়া

পেন্টাগন সমর্থিত সিরীয় বিদ্রোহী সংগঠন রেভ্যুলুশনারি কমান্ডো আর্মির নেতা মুহাম্মদ আল-তালা যুক্তরাষ্ট্রের মেরিন সেনাদের সঙ্গে মহড়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এর মধ্যদিয়ে আমেরিকা ও বিদ্রোহীরা রাশিয়া ও ইরানের প্রতি সতর্ক বার্তা দিয়েছে। বিরোধী ও বিদ্রোহীরা যে কোনও হুমকি মোকাবিলা করবে।

আল-তালা জানান, এই মহড়া ছিল আট দিনব্যাপী। এই সপ্তাহেই এই মহড়া শেষ হয়।  সিরিয়ার জর্ডান ও ইরাক সীমান্তের কাছে অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ঘাঁটি আল-থানফে এই মহড়া আয়োজন করা হয়েছিল। বিদ্রোহীদের নিয়ে এটাই ছিল এ পর্যন্ত সবচেয়ে বড় সামরিক মহড়া। এতে তাজা গুলি ও একই সঙ্গে আকাশ ও স্থেল হামলার প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। অংশ নেন কয়েকশ মার্কিন সেনা ও বিরোধী যোদ্ধা।

মার্কিন সেনাবাহিনীর এক মুখপাত্রের মতে, সংশ্লিষ্ট অঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্রের বাহিনীর বিরুদ্ধে যে কোনও হুমকি মোকাবিলার সামর্থ্য বৃদ্ধির জন্য এই মহড়ার আয়োজন করা হয়েছিল।

দীর্ঘ সাত বছর ধরে চলমান সিরীয় গৃহযুদ্ধ আন্তর্জাতিক ছায়াযুদ্ধে পরিণত হয়েছে। রাশিয়া ও ইরান দেশটির প্রেসিডেন্ট আসাদকে সমর্থনে সামরিক অভিযানে চালিয়ে যাচ্ছে। আর আসাদবিরোধী সশস্ত্র বিদ্রোহীদের সমর্থন, সহযোগিতা, প্রশিক্ষণ ও পরামর্শ দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।