নরসিংদীতে দুই বাসের মুখোমুখী সংঘর্ষ, নিহত ৪

দুর্ঘটনা কবলিত বাস

নরসিংদী জেলার শিবপুর উপজেলায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে দুটি যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নারীসহ ৪ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো ২২ জন।

শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে উপজেলার সৈয়দ নগর এলাকায় এ দূর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ২২ জন। ঘটনার পরপরই ইটাখোলা পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা ও শিবপুর এবং নরসিংদীর ফায়ার সার্ভিসে দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে লাশ উদ্ধার করেন এবং আহতদের নরসিংদী জেলা হাসপাতালে পাঠান। আশঙ্কাজনক অবস্থায় আটজনকে সেখান থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান কর্তব্যরত চিকিৎসক।

পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, ঢাকা থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়াগামী রয়েল পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস ওভারটেকিং করার সময় বিপরীত দিক সিলেট থেকে ঢাকাগামী নিরাপদ পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই এক নারী যাত্রীসহ দুই জন নিহত হন। দুর্ঘটনায় আহত হন আরও ২২ যাত্রী। আহতদের দ্রুত উদ্ধার করে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নেওয়ার পথে আরও ২ জনের মৃত্যু হয়।

নিহতদের মধ্যে তিনজনের নাম পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন-শিবপুরের ঘোড়ারগাঁও গ্রামের আলাউদ্দিন (৬০), লোকাল বাসের চালক উত্তর নাগরিয়াকান্দি গ্রামের আনোয়ার হোসেন (৫০) ও শিবপুরের কারাচর এলাকার নাছির উদ্দিনের স্ত্রী রেহেনা বেগম (৪৫)।

নরসিংদী ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন কর্মকর্তা শাহজাহান সিরাজ দুর্ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, দূর্ঘটনার পর পর ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহ ও আহতদের উদ্ধার করে জেলা হাসপাতালে পাঠায়।তিনি জানান, মহাসড়ককে যান চলাচল সচল রাখতে সড়কের ওপর থেকে দূর্ঘটনাকবলিত বাস দুটিকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

তৌহিদ/সক