আন্তর্জাতিক

উইঘুর ইস্যুতে চীনের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা অবরোধ

চীনে উইঘুর মুসলিম জনগোষ্ঠীর ওপর দমনপীড়ন চালানোর ঘটনায় সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগ রয়েছে এমন চীনা কর্মকর্তাদের ভিসা প্রদানের ওপর নানা রকম নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

চীনের জিনজিয়াং প্রদেশে সংখ্যালঘুদের ওপর নিপীড়ন চালানোর ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগ এনে সোমবার ২৮টি চীনা সংগঠনকে কালো তালিকাভুক্ত করে যুক্তরাষ্ট্র। তারই ধারাবাহিকতায় এ সিদ্ধান্ত এলো।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, চীন সরকার উচ্চমাত্রার দমননীতিকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিয়েছে। তাই এসব সিদ্ধান্ত নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে পম্পেও অভিযোগ করেছেন, চীনের সরকার উইঘুর, কাজাখ নৃতাত্ত্বিক গোষ্ঠী, কিরগিজ মুসলিমসহ দেশের অন্যান্য সংখ্যালঘু মুসলিম জাতিগোষ্ঠীর ওপর ধারাবাহিক নিপীড়ন চালাচ্ছে।

এসব নির্যাতনের মধ্যে রয়েছে প্রশিক্ষণ শিবিরের নামে গণ-আটক, ব্যাপক পরিসরে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির নজরদারি, সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় কর্মকাণ্ডের ওপর অতি কঠোর নিয়ন্ত্রণ এবং বিদেশে অবস্থানরতদের জোরপূর্বক দেশে ফিরিয়ে এনে নিপীড়ন করা।

তবে এসব অভিযোগ ‘ভিত্তিহীন’ দাবি করে অস্বীকার করেছে চীন। সোমবারদেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র গেং শুয়াং বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র যেমনটা দাবি করছে, সেরকম কোনো মানবাধিকার সংকটই নেই চীনে।

‘এগুলো চীনের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে উদ্দেশ্যমূলকভাবে হস্তক্ষেপ করার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের অজুহাত ছাড়া কিছুই না,’ বলেন তিনি।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button