আন্তর্জাতিক

কাশ্মীর ইস্যুতে অর্ধশতাধিক রাষ্ট্রের সমর্থন পেল পাকিস্তান

সওয়াল জবাব শেষ। এ বার রায় দেওয়ার পালা। আগামী শুক্রবার রাজীব কুমার বনাম সিবিআই মামলার রায় ঘোষণার সম্ভাবনা। বুধবার এমনটাই ইঙ্গিত দিয়েছেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি মধুমতি মিত্র।

কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই কি আদৌ সারদা মামলায় নোটিস দিয়ে সমন পাঠাতে পারে? কতটা আইনসিদ্ধ সেই প্রক্রিয়া? সেটাকে চ্যালেঞ্জ করেই হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার। মামলা চলাকালীন দফায় দফায় আদালত তাঁর আবেদন মেনে গ্রেফতারির বিরুদ্ধে আইনি রক্ষা কবচের মেয়াদও বাড়ায়। এক মাসেরও বেশি দিন ধরে চলে মামলার সওয়াল জবাব। রাজীব কুমারের আইনজীবী মিলন মুখোপাধ্যায় ২৩ দিন ধরে সওয়াল করেন।

অন্য দিকে, সিবিআইয়ের পক্ষে সওয়াল করেন ওয়াই জে দস্তুর। তিনি সাত দিন সময় নেন মিলনবাবুর সওয়ালের জবাব দিতে। বুধবার সেই সওয়াল জবাব পর্ব শেষ হয়। শুক্রবার তিনি রায় দিতে পারেন বলে এ দিন বিচারপতি মিত্র ইঙ্গিত দিয়েছেন।

সিবিআইয়ের আইনজীবী সওয়াল শুরু করার পরের দিনই রাজীব কুমারের আইনজীবী বিচারপতিকে রুদ্ধদ্বার সওয়াল-জবাবের আবেদন জানান। মিলনবাবু এজলাসে সংবাদমাধ্যমের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার আবেদন করেন। বিচারপতি সেই আবেদন মেনে নেন। তবে আইনজ্ঞদের দাবি, শুক্রবারের রায়ের উপর নির্ভর করবে রাজীব কুমারের ‘গ্রেফতারি ভাগ্য’। কারণ তিনি ওই মামলা সামনে রেখেই আদালত থেকে গ্রেফতারির বিরুদ্ধে আইনি রক্ষা কবচ পেয়েছেন। সেই রক্ষা কবচ আর থাকবে কি না তা অনেকটাই নির্ভর করবে ওই রায়ের উপর।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button