আন্তর্জাতিক

চীনের প্রতিরক্ষা বাজেট বাড়ল, এখন ভারতের তিন গুণ

বার্ষিক প্রতিরক্ষা বাজেট ৭ দশমিক ১ শতাংশ বাড়িয়ে ২৩০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে উন্নীত করেছে চীন। গত বছর দেশটির প্রতিরক্ষা বাজেট ছিল ২০৯ বিলিয়ন ডলার।

রাষ্ট্র পরিচালিত পত্রিকা চায়না ডেইলি জানায়, দেশটির পার্লামেন্ট ন্যাশনাল পিপল কংগ্রেসে (এনপিসি) আজ শনিবার খসড়া প্রতিরক্ষা বাজেট প্রস্তাব পেশ করেন প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াং। ২০২২ অর্থবছরের জন্য ১ দশমিক ৪৫ ট্রিলিয়ন ইউয়ান (২৩০ বিলিয়ন ডলার) প্রতিরক্ষা বাজেটের প্রস্তাব দিয়েছে চীন সরকার।

অঙ্কটি গত বছরের তুলনায় ৭ দশমিক ১ শতাংশ বেশি।

 

২০২২ সালে ভারতের প্রতিরক্ষা বাজেট নির্ধারিত হয় ৭০ বিলিয়ন ডলার। এবার বাড়ানোর ফলে ভারতের চেয়ে চীনের প্রতিরক্ষা বাজেট এখন তিন গুণ বেশি হলো।

গত বছর চীনের প্রতিরক্ষা ব্যয় প্রথমবারের মতো ২০০ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করে। আর ২০২০ সালের তুলনায় প্রতিরক্ষা ব্যয় বাড়ে ৬ দশমিক ৮ শতাংশ।

অন্যদিকে পার্লামেন্টে বাজেট প্রতিবেদন উপস্থাপনের সময় প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াং ‘চরম যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত’ থাকতে দেশটির সামরিক বাহিনী পিপলস লিবারেশন আর্মিকে প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, দেশের সার্বভৌমত্ব, নিরাপত্তা ও উন্নয়নের স্বার্থ রক্ষায় সেনাবাহিনীকে একইসঙ্গে ‘অটল ও নমনীয় থেকে সামরিক সংগ্রামের সমাধান করতে হবে’।

পূর্ব লাদাখে ভারতের সঙ্গে অচলাবস্থা এবং যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ক্রমবর্ধমান সামরিক ও রাজনৈতিক উত্তেজনার মধ্যে চীনের প্রতিরক্ষা বাজেট বাড়ানোর ঘোষণা এলো। যুক্তরাষ্ট্রের পর বিশ্বে প্রতিরক্ষা খাতে সবচেয়ে বেশি ব্যয় করা দেশ চীন।

ব্রহ্মোস ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা: ভারতীয় নৌবাহিনী গতকাল দূরপাল্লার সুপারসনিক (শব্দের চেয়ে বেশি গতি) ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র ব্রহ্মোসের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে। সে সময় অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্রটি নিখুঁতভাবে লক্ষ্যে আঘাত হানতে সক্ষম হয়। এক টুইটে নৌবাহিনী জানায়, একটি যুদ্ধজাহাজ থেকে ক্ষেপণাস্ত্রটি নিক্ষেপ করা হয়। সূত্র : এনডিটিভি

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button