আন্তর্জাতিক

বিশ্ব ঐতিহ্যের মর্যাদা হারাল লিভারপুল

২০০৪ সালে লিভারপুলকে  বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেছিল ইউনেসকো। উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের জেরে লিভারপুলের ভিক্টোরিয়ান ডকস আকর্ষণ হারানোয় মর্যাদা হারাল নগরীটি।
চীনে এক বৈঠকে ইউনেস্কো কমিটির সদস্যদের গোপন ভোটাভুটির পর লিভারপুলকে বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকা থেকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
ইউনেস্কো জানায়, লিভারপুলে নতুন নতুন ভবন হওয়ার কারণে নগরীর ‘ঐতিহাসিক মূল্য এবং অখন্ডতা’ ক্ষুন্ন হচ্ছে।
নামকরা ব্যান্ডদল বিটলসের আদি শহর লিভারপুলকে এর স্থাপত্যশিল্পের সৌন্দর্য এবং ১৮ ও ১৯ শতকের সময়টিতে বিশ্বের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বন্দরনগর হিসাবে ভূমিকা রাখার স্বীকৃতি দিতেই বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় স্থান দেওয়া হয়েছিল।
নগরীটি আরও আগেই এই তালিকা থেকে বাদ যাওয়ার হুমকিতে ছিল। ২০১২ সালে ইউনেস্কো লিভারপুলের নাম ‘ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ ইন ডেনজার’ হিসাবে তালিকাভুক্ত করে সতর্কবার্তা দিয়ে বলেছিল, ফ্ল্যাট এবং অফিস ভবন তৈরির পরিকল্পনার কারণে নগরীর দিগন্তজোড়া আকাশের সৌন্দর্য নষ্ট হবে।
এরপর বিশেষত আপত্তির মুখেও লিভারপুলে ফুটবল স্টেডিয়াম তৈরির মেগা প্রকল্প এগিয়ে নেওয়ার কারণে বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকা থেকে নগরীটির নাম বাদ গেল।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button