বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

লেন্স নয়, লেজারের দূরবীনে খোঁজা হবে এলিয়েন

পৃথিবীর বাইরে প্রাণের অস্তিত্ব নিয়ে বিস্তর গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। সেই গবেষণায় নতুন মাত্রা যোগ করবে লেজারের দূরবীন। লেন্সের চেয়েও বহুগুণ শক্তিশালী এই অনুবীক্ষণ প্রযুক্তি। এই দূরবীন তৈরি করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজির (ক্যালটেক) গবেষকরা। নতুন এই ডিভাইসটির নাম দেয়া হয়েছে ডিজিটাল হলোগ্রাফিক মাইক্রোস্কোপ। এটি মহাকাশে জীবনের খোঁজ করবে। টেকনোলজি সাইট নেক্সট ওয়েবের প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

এর আগে ১৯৭৬ সালে ‘ভাইকিং’ মহাকাশ প্রকল্পে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা সক্রিয়ভাবে পৃথিবীর বাইরে জীবনের সন্ধান চালিয়েছিল। এরপর থেকে এখন পর্যন্ত এই সন্ধান চালানোর সবচেয়ে ভালো উপায় কী হতে পারে তা বিজ্ঞানীরা স্পষ্ট করে বলেননি। জীবিত কোনো প্রাণীকে পাঠানোর মাধ্যমে এ গবেষণা করতে গেলে, তা আর ফিরে আসবে কিনা তা নিশ্চিত করার কোনো উপায় নেই। মহাকাশে পাওয়া নমুনাগুলো নিয়ে পরীক্ষা চালাতে বিজ্ঞানীদের হাতে প্রচলিত অণুবীক্ষণ যন্ত্র ব্যবহারের কোনো সুযোগ নেই।

এই ডিভাইসে কোনো বস্তুকে বড় করে দেখাতে লেন্স ব্যবহারের প্রচলিত কৌশল ব্যবহার করা হয়নি। এতে লেজার ব্যবহার করা হয়েছে, যা অণুবীক্ষণিক উপাদানগুলোর তিনটি নড়াচড়া দেখাবে। পরে এই নড়াচড়া কোনো জড়বস্তুর নাকি কোনো জীবের তা নিয়ে বিশ্লেষণ চালানো হবে। ক্যালটেক যে ডিজিটাল হলোগ্রাফিক মাইক্রোস্কোপ তৈরি করছে, তা এনসেলাডাস থেকে ছাড়া বাষ্পে কোনো জীবাণুর অস্তিত্ব আছে কিনা তা খুঁজে বের করবে। বিজ্ঞানীরা উত্তর মেরুতে এই ডিভাইসের পরীক্ষা চালিয়েছেন। এখন তারা দক্ষিণ মেরুর আরও কঠিন পরিবেশে পরীক্ষা চালানোর পরিকল্পনা করছেন।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button