লিড নিউজ

সেপ্টেম্বরের আগে ওমরায় যেতে পারছেন না বাংলাদেশিরা

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে বিদেশিদের হজ ও ওমরা পালনের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল সৌদি সরকার। দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর বাংলাদেশসহ কয়েকটি দেশের জন্য ওমরা পালনের নিষেধাজ্ঞা শিথিল করেছে দেশটি। সোমবার থেকে ওমরা পালনের জন্য ভ্রমণের আবেদনপত্র নিতে শুরু করেছে তারা। তবে নিষেধাজ্ঞা না থাকলেও সেপ্টেম্বরের আগে ওমরা পালনে যেতে পারছেন না বাংলাদেশিরা।
সময়ের আলোকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হজ এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব)-এর সভাপতি শাহাদাত হোসাইন তসলিম।
তিনি বলেন, সৌদি সরকার হজ ও ওমরা পালনের ওপর দেওয়া নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে। কিন্তু ওমরায় যাওয়ার জন্য কিছু নিয়মকানুন দিয়েছে, সেগুলো পালনসাপেক্ষে ওমরায় যাওয়া যাবে। এ ছাড়াও বেশ কিছু আনুষ্ঠানিকতা রয়েছে, এগুলো করতে প্রায় ৩ সপ্তাহ লাগবে। তারপর অনলাইনে ভিসার প্রসেসিং করা যাবে। সে হিসাবে আশা করা যায়, আগামী মাস অর্থাৎ সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে ওমরায় যেতে পারবেন আগ্রহীরা।
হাব সভাপতি বলেন, আমরা ফরমালিটিজের কাজ শুরু করে দিয়েছি। তালিকাভুক্তির জন্য সোমবার ধর্ম মন্ত্রণালয়ে ২৪৭টি এজেন্সির তালিকা দেওয়া হয়েছে। তালিকাভুক্ত হলে তারা চাইলে ওমরার যাত্রী পাঠাতে পারবে। আমাদের ধর্ম মন্ত্রণালয় অনুমোদিত এসব এজেন্সিগুর সঙ্গে সৌদি সরকারের অনুমোদন পাওয়া এজেন্সিগুলোর দ্বিপাক্ষিক চুক্তি হবে। ওমরা যাত্রীরা খরচের জন্য যে টাকা নিয়ে যাবেন সে জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের একটা সার্কুলার লাগবে। এটা বাকি আছে। এমন বেশ কিছু কাজ বাকি আছে। তিনি আরও বলেন, ওমরার ভিসা প্রসেসিং অনলাইনে করতে হয়। সৌদির মিনিস্ট্রি অব ফরেন অ্যাফেয়ার্সের দায়িত্ব ভিসা ইস্যু করার। ফরমালিটিসগুলো হয়ে গেলে ভিসা আবেদন করার পর ভিসা পেতে কয়েক ঘণ্টা লাগে।
ওমরা পালনে ইচ্ছুক মুসল্লিদের ওপর কিছু শর্ত আরোপ করা হয়েছে। সেগুলোর অন্যতম হচ্ছে করোনাভাইরাসের টিকা নেওয়ার প্রমাণপত্র থাকতে হবে। শুধু নয়টি দেশ ছাড়া বিশে^র সব দেশের মানুষ থেকে সরাসরি ফ্লাইটে সৌদি আরবে প্রবেশ করতে পারবে। নয়টি দেশ হচ্ছে- ভারত, পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া, মিসর, তুরস্ক, আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, দক্ষিণ আফ্রিকা ও লেবানন।
করোনাভাইরাস মহামারির কারণে সৌদি আরব ১৮ মাস আগে তার সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছিল। তবে গত ১ আগস্ট থেকে সৌদি আরব আবার বিদেশিদের ঢুকতে দিচ্ছে। বছরের যেকোনো সময় ওমরা পালন করা যায় এবং ওমরার সময় মক্কা এবং মদিনা সফর করতে হয়। গোটা বিশ্ব থেকে প্রতিবছর লাখ লাখ মুসলিম মক্কা ও মদিনায় যান ওমরা পালনের জন্য।
সৌদি প্রেস এজেন্সি জানিয়েছে, শুরুতে কর্তৃপক্ষ প্রতি মাসে ৬০ হাজার মানুষকে ওমরা পালনের অনুমতি দেবে। তবে ক্রমে এই সংখ্যা বাড়িয়ে মাসে বিশ লাখ পর্যন্ত করা হবে।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button