রংপুর বিভাগসারাদেশ

কুড়িগ্রামে তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের দফারফার টাকা মাতব্বরদের পকেটে!

সাইফুর রহমান শামীম, কুড়িগ্রাম:তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের দফারফার টাকা মাতব্বরদের পকেটে। এই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল সকাল ১১ টার দিকে কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার  ঘড়িয়ালডাঙ্গা ইউনিয়নের খিতাব খাঁ গ্রামে ।
  প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান মোকছেদুলের বাড়ির লোকজন  ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদে যায়, বাড়ি ফাঁকা  থাকার সুবাদে  প্রতিবেশী হিন্দু সম্প্রদায়ের দাদা সম্পর্কের নরেশ চন্দ্র ( ৫০) বাড়ি ফাকা পেয়ে মোকছেদুলের তৃতীয় শ্রেণীতে পড়ুয়া মেয়েকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে ।
 এক পর্যায়ে মেয়েটির আত্মচিৎকারে প্রতিবেশী মহি খাঁলারা এগিয়ে এসে নরেশ চন্দ্র কে হাতেনাতে আটক করে ।
পরে স্থানীয়রা  তাকে খুঁটির সঙ্গে দড়ি দিয়ে বেঁধে রাখে। বাঁধা অবস্থায় সারাদিন থাকার পর রাতে
 স্থানীয় একটি মহল আটককৃতকে বাঁচাতে মেয়েটির পরিবারকে মামলা করতে না দিয়ে ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বাবু মণ্ডল ও কালাম মাষ্টারের নেতৃত্বে  শালিসি বৈঠক বসান । বৈঠকে ৭০ হাজার টাকা রফাদফা হলেও এখন পর্যন্ত কোনো টাকা-পয়সা পাননি ভুক্তভোগী পরিবারটি।  মেয়ের দাদা আছমান আলী জানান বাড়িতে কেউ না থাকায় সে মেয়েটির ক্ষতি করেছে , মেয়ের চাচা আমিন মিয়া জানান শালিসি বৈঠক বসেছিল তবে কোন টাকা পায়নি।
ইউপি সদস্য বাবু মণ্ডল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন বিষয়টি সমাধানের জন্য বৈঠকে বসেছি ।
বিষয়টি নিয়ে আপনাদের সাথে বসা হবে ।
রাজারহাট থানার ওসি রাজু সরকার জানান অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button