খুলনা বিভাগসারাদেশ

কেশবপুরে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই উপ-নির্বাচন চান সচেতন মহল

শোর ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি:  স্বাস্থ্যবিধি মেনেই যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনে উপ-নির্বাচন চেয়েছেন সুশীল সমাজ ও ব্যাবসায়ী মহল।
কেশবপুর উপজেলা প্রেসক্লাবে শনিবার সকালে সংবাদ সম্মেলনে সুশীল সমাজ ও ব্যাবসায়ী মহলের পক্ষ থেকে লিখিত বক্তব্য পাঠকালে সংবাদ সম্মেলন বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক সৈয়দ আকমল আলী বলেন, ২০২০ সালের ২১ জানুয়ারী  যশোর- ৬ কেশবপুর সংসদী আসনের এমপি ইসমাত আরা সাদেকের মৃত্যুতে সংসদীয় এলাকাটি অভিভাবক শূন্য হয়ে যায়।

গত ১৬ ফেব্রুয়ারী  যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনে উপ-নির্বাচনের তফশীল ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশন। ঘোষিত তফশীল অনুযায়ী ২৭ ফেব্রুয়ারীর মধ্যে মনোনয়ন পত্র জমাদেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী শাহীন চাকলাদার, বিএনপি মনোনীত ধানের শীষের প্রার্থী আবুল হোসেন আজাদ ও জাতীয় পার্টি মনোনীত লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী হাবিবুর রহমান।

২৯ মার্চ উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছিল এবং নির্বাচনী প্রচারণা যখন তুঙ্গে ঠিক সেই সময় ২১ মার্চ করোনা ভাইরাসের কারণে নির্বাচন কমিশন  যশোর- ৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনের উপ-নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করেন। যার ফলে কেশবপুর উপজেলা ব্যাপী ব্যাবসা-বাণিজ্য ও উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে মুখ থুবড়ে পড়েছে।

জনগণ ভোগান্তির শিকার হচ্ছে। একজন সংসদ সদস্যের অনুপস্থিতিতে সাধারণ সরকারী কোটা থেকে জনগণ বঞ্চিত হচ্ছে। বন্যার মৌসুম প্রতিরোধে কোন প্রস্তুতিমূলক কর্মকান্ড পরিলক্ষিত হচ্ছে না।

যার কারণে  স্বাস্থ্যবিধি মেনেই যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনে উপ-নির্বাচন অতি জরুরী হয়ে পড়েছে। সংবাদ সম্মেলনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আশু হস্তক্ষেপে নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে মাধ্যমে যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনে উপ-নির্বাচন দ্রুত সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করার জন্য উপজেলা বাসীর পক্ষ থেকে ব্যাবসায়ী মহল ও সুলীল সমাজ জোর দাবী জানান।

সংবাদ সম্মেলনে সম্মেলন বাস্তবায়ন কমিটির সদস্য সচিব নাসির আহম্মেদ গাজীও উপস্থিত ছিলেন।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Back to top button