রাজশাহী বিভাগসারাদেশ

ধামইরহাটে ধানের সাথে শত্রুতা, বলি আড়াই বিঘা জমির ধান

 ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ  নওগাঁর ধামইরহাটে প্রতিপক্ষের বলি এক কৃষকের আড়াই বিঘা জমির উড়তি ধানের গাছ। ধানের শিষ বের হওয়ার আগ মুহুর্তে ধান গাছ গুলো নষ্ট করায় হতাশায় ভুগছেন ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক। ভুক্তভোগী সুবিচারের আশায় আইনি সহায়তা চেয়েছেন।
ধামইরহাট থানায় লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার আলমপুর ইউনিয়নের বড়মোল্লা পাড়া (বীরগ্রাম) এলাকার মৃত আব্দুল লতিফের ছেলে আনিছার রহমান অভিযোগ করেন, বীরগ্রাম মৌজায় তার পৈতৃক সুত্রে ক্রয় করা ১.২৫ একর জমিতে দীর্ঘদিন যাবৎ চাষাবাদ করে আসছিলেন। এমতাবস্থায় প্রতিপক্ষের লোকজন  চলতি মাসের ৯ সেপ্টেম্বর তার রোপনকৃত জমিতে আগাছা নাশক স্প্রে করে ধান গাছ বিনস্ত করার অভিযোগ করেছেন। ভুক্তভোগী আনিছার রহমান বলেন, ‘আমার জমিতে আমার ছোট ভাই  মো. আমিনুল ইসলাম, অন্যদের মধ্যে আনোয়ার হোসেন, নাসির উদ্দিন সহ ৪/৫ জন দীর্ঘদিন ধরে শত্রুতা করে আসছেন, ৯ সেপ্টেম্বর রাতে স্থানীয় জিয়াউর রহমান এ্যাম্বুলেন্স নিয়ে রাস্তা দিয়ে যেতে জমিতে আগাছা নাশক স্প্রে করা দেখতে পান এবং সময় আমাকে বিষয় জানান, এতে আমার প্রায় ১ লাখ টাকার ফসলের ক্ষতি হয়। আমি এ বিষয়ে ধামইরহাট থানায় ও মাননীয় সাংসদসহ স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে অবগত করেছি।’
অভিযুক্ত প্রতিপক্ষ আমিনুল ইসলামের সাথে মোবাইল ফোনে কথা বললে তিনি জানান, জমিটি আমার, আমি ধান রোপন করেছি। আমার প্রতিপক্ষরা জোর করে জমি জবর দখলের চেষ্টা করেছে। আমরা ২ ভাই ৭ বোন, বোনদের অংশ অভিযোগকারী আনিছার আত্নসাৎ করেছেন। আমি কারও ধানে স্প্রে করিনি, বরং সেই আমার ধানে স্প্রে করেছে।’
ধামইরহাট থানার ওসি আবদুল মমিন জানান, আনিছার রহমান পরিপক্ষ ধান গাছে আগাছা স্প্রে করার অভিযোগ করলেও প্রতিপক্ষ আমিনুল ইসলাম থানায় একটি এজাহার করেছেন, প্রকৃত ঘটনা  তদন্ত করে আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button