রংপুর বিভাগসারাদেশ

নীলফামারীতে ভোটের দাবিতে মানববন্ধন

নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি ॥ নীলফামারী সদর উপজেলার খোকশাবাড়ী ইউনিয়নে ভোটের দাবিতে মানবন্ধন করেছে এলাকাবাসী। নির্বাচনের দাবীতে ফুঁসে উঠেছে ইউনিয়নের হাজার হাজার ভোটার। বুধবার (০৯ মার্চ) ইউনিয়নের হালির বাজার ও জোরাপুল সহ বিভিন্ন যায়গায় মানববন্ধন করেন এলাকাবাসী।মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ‘সময়মতো নির্বাচন হলে গণতান্ত্রিক চর্চা ঠিক থাকে। আমরা পছন্দের ব্যক্তিকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করতে পারি। কিন্তু ১২ বছর থেকে আমরা নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারি নি। ইতিমধ্যে উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নের মধ্যে ১৪টি ভোট ইতোমধ্যে অনুষ্ঠিত হয়েছে। তিনটি ইউনিয়নের সিমানা জটিলতা ছিল সেই ইউনিয়ন গুলোর ভোট ইতিমধ্যে অনুষ্ঠিত হয়েছে। আমাদের ইউনিয়নের কেনো ভোট হচ্ছে না। কেনো আমরা নিজেদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারছি না। আমরা প্রশাসনের কাছে জবাব চাই। অতি শীঘ্রই আমরা ভোট চাই।’ভোট দিতে না পেরে মানববন্ধনে নবীন ভোটররা বলেন, ‘সময়মতো ভোট হলে ভোটার এবং প্রার্থীর মধ্যে সু-সম্পর্ক তৈরি হয়। যারা ভোটে নির্বাচিত হন, তাদের যেমন কাজের পরিকল্পনা বাড়ে, তেমনি নতুনদেরও মূল্যায়নের সুযোগ থাকে। জবাবদিহির জায়গাটা বেশি শক্ত হয়। এ জন্য আমরা নবীন ভোটাররা জোর দাবি জানাচ্ছি প্রতি পাঁচ বছর পরপর ভোট হওয়ার যে বিধান রয়েছে সেটি যেনো অব্যাহত থাকে এবং সেই সাথে অতি দ্রুত আমাদের খোকশাবাড়ী ইউনিয়নের ভোট অনুষ্ঠিত হয়।’সূত্রমতে, নীলফামারী সদর উপজেলার খোকশাবাড়ি ইউনিয়নে ২০১১ সালের ৫ জুন সর্বশেষ ভোট অনুষ্ঠিত হয়। বর্তমানে চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন বদিউজ্জামান প্রধান। এই ইউনিয়নে ভোটার রয়েছেন ২০ হাজার ৬৩৯ জন। নীলফামারী পৌরসভার সাথে সীমানা জটিলতা মামলায় রয়েছে উপজেলার টুপামারী, ইটাখোলা, কুন্দপুকুর ও খোকশাবাড়ী ইউনিয়নের। ভোটগ্রহণে কোনো বাধা না থাকায় ইতিমধ্যে নীলফামারী পৌরসভা সহ টুপামারী, ইটাখোলা ও কুন্দপুকুরের ভোট অনুষ্ঠিত হলেও অজানা কারণে আটকে রয়েছে খোকশাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের ভোট। এতে করে ওই ইউনিয়নের ভোটাররা এক যুগ থেকে তাদের ভোটাধিকার থেকে বি ত। খোকশাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বদিউজ্জামান প্রধান বলেন, আমিও নির্বাচন চাই। যারা মানববন্ধন করলো তারা আমাকে জানালে আমিও মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করতাম। কারণ পৌরসভার সাথে সীমানা জটিলতা মামলায় টুপামারী, কুন্দপুকুর ও ইটাখোলা উচ্চ আদালতে মামলা করেছিল। অথচ তাদের ইউনিয়নের ভোট অনুষ্ঠিত হয়েছে। আমার ইউনিয়ন আদালতে কোনো মামলা না যাওয়া সত্তেও কেনো ভোট হচ্ছে না এটি নির্বাচন কমিশন বলতে পারবে।জানতে চাইলে সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আফতাব উজ্জামান বলেন, সীমানা জটিলতার কারনে নির্বাচন বন্ধ রয়েছে। তবে কয়েক মাসের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button