রাজশাহী বিভাগসারাদেশ

বগুড়ার মোকামতলায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে দোকান বসতবাড়িসহ মাদ্রাসা পুড়ে ছাই

প্রায় ২ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে

বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার মোকামতলায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় বেশ কয়েকটি দোকান, বসতবাড়ি ও একটি মাদ্রাসা পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত পৌনে ১টার দিকে মোকামতলা-সোনাতলা রোডের ভাই ভাই বেকারির সামনের দোকানগুলোতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে প্রায় ২ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

স্থানীয়রা জানান, গতকাল দিবাগত রাত পৌনে ১টার দিকে সোনাতলা রোডের ভাই ভাই বেকারির সামনের দোকানগুলোতে লাগা আগুনে মানিক মিয়া নামের এক ব্যক্তির পার্সের দোকান ও দোকানটিতে রাখা ৮টি মোটরসাইকেল, মিঠু মিয়ার একটি লেপ তোশকের দোকান ও একটি মুদি দোকান, রাসেল ডাক্তারের বাড়ি, ফ্রেন্ডস ট্রেডার্সের ডিজেল পেট্রল ও গ্যাসের দোকান এবং অমিত সাহার তেল পেট্রল ও গ্যাসের দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এ সময় দোকানের পেছনে অবস্থিত একটি মহিলা মাদ্রাসাও আগুনে ভস্মীভূত হয়েছে।

এ বিষয়ে ব্যবসায়ীরা বলেন, দোকানের ভেতরে থাকা সকল পণ্য ও নগদ টাকা পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। আগুনের তীব্রতায় কিছুই বের করতে পারিনি। এতে প্রায় ২ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।

বগুড়া ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আব্দুল হালিম বলেন, আগুনের খবর পেয়ে প্রথমে শিবগঞ্জ ফায়ার স্টেশন ও পরে সোনাতলা, বগুড়া সদর ও কাহালু ফায়ার স্টেশনের মোট ৪টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণের কাজ শুরু করে। পরে ২ ঘণ্টার প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

এ সময় আগুন নেভাতে গিয়ে রুহুল আমিন নামে বগুড়া ফায়ার স্টেশনের এক কর্মী আহত হন।

স্টেশন অফিসার আরও বলেন, বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button