খুলনা বিভাগসারাদেশ

ভাঙ্গায় লুন্ঠিত মালামাল সহ মুদ্রা প্রতারক চক্রের সদস্য গ্রেফতার

ভাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি: ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার চুমুরদী ইউনিয়নের হরিখোলা মাঠ এলাকা থেকে মুদ্রা প্রতারক চক্রের প্রধান হোতা জাহিদুল (৩৫) কে আটক করেছে ভাঙ্গা থানা পুলিশ। ধৃত জাহিদুল উপজেলার হরিখোলা গ্রামের আমজাদ এর ছেলে। এ সময় জাহিদের তথ্যমতে একাধিক স্থানে তল্লাশি চালিয়ে প্রতারণা কাজে ব্যবহৃত একটি মোবাইল সেট ও ১ লক্ষ ২৫ হাজার টাকার সৌদি রিয়াল,মালয়েশিয়ান রিংকিট,ইন্দোনেশিয়া সহ বিভিন্ন বৈদেশিক মুদ্রা উদ্বার করে। গতকাল বুধবার রাতে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয় বলে ভাঙ্গা থানা পুলিশ সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে ফরিদপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামাল পাশা জানান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ভাঙ্গা সার্কেল) ফাহিমা কাদের চৌধুরী ও অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ লুৎফর রহমান। সংবাদ সম্মেলনে তিনি(জামাল পাশা) জানান, ধৃত জাহিদুল নড়াইল এলাকায় একটি বাড়িতে ভাড়া থেকে ছদ্মবেশে ফেরি করে মশারি বিক্রি করত। এক পর্যায়ে জাহিদুল ভাড়া বাসার মালিকের এক অত্মীয়ের সাথে সখ্যতা গড়ে তোলে। অতি সম্প্রতি ভাঙ্গা উপজেলা হাসপাতাল এলাকায় কম দামে রিয়াল পাওয়া যাবে বলে জাহিদ ওই আত্মীয়কে ফোন করে এনে ভ’য়া রিয়ালের ব্যাগটি গছিয়ে দিয়ে তার নিকট (রবিউল) থেকে আড়াই লাখ টাকার ব্যাগটি ধৃত জাহিদুল নিয়ে নেন। এবং পুলিশের ভয় দেখিয়ে রিয়াল গুণতে না দিয়ে স্থান ত্যাগ করতে বলেন । পরে রবিউল নিজের প্রাইভেটকারে উঠে ব্যাগটি খুলে দেখেন ভিতরে রিয়ালের পরিবর্তে কাগজ কেটে বান্ডিল করে গামছা দিয়ে মুড়ানো। প্রতারনার স্বীকার রবিউল ইসলাম এ ঘটনায় বাদী হয়ে ভাঙ্গা থানায় একটি প্রতারনার মামলা করেন। সেই মামলায় চক্রটিকে ধরতে পুলিশ মাঠে নামে। এ ঘটনায় ভাঙ্গা থানার এস.আই আবুল কালাম আজাদ,এস,আই জয়ন্ত চৌধুরী,এ,এস.আই শেখ রেজওয়ান মামুন,এ,এস,আ্ই রাকেশ মন্ডল সহ সঙ্গীয় পুলিশ নিয়ে অভিযান চালিয়ে প্রতারক চক্রের সদস্যকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। এ ঘটনায় জাহিদুলের আরেক সহযোগীকে ধরার চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button