রংপুর বিভাগসারাদেশ

সৈয়দপুরে রাজাকার আখ্যা দিয়ে আওয়ামী লীগ পরিবারকে হেনস্থা করার অভিযোগ

নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি: আদালতের মাধ্যমে বিরোধীয় জমির বিরোধ নিষ্পত্তি হয়েছে। কিন্তু ওই জমিকে কেন্দ্র করে  নীলফামারীর সৈয়দপুরে ইদ্রিস আলী নামে এক  প্রতিবেশী প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে নতুন কৌশল অবলম্বন করেছেন এক মুক্তিযোদ্ধা।  মুক্তিযোদ্ধার  খেতাব ব্যবহার করে প্রতিবেশী আ’লীগ নেতার পরিবারকে রাজাকার আখ্যা দিয়ে হেনস্তা করতে অপপ্রচার করা হচ্ছে। গতকাল সোমবার অভিযুক্ত ওয়ার্ড আ’লীগ নেতা সংবাদ সম্মেলনে প্রতিপক্ষের মিথ্যাচারের ওই অভিযোগ করেন।
শহরের গোলাহাটস্থ নিজ বাসভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মো. ইদ্রিস আলীর পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন তার জ্যেষ্ঠ পুত্র  ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক কামাল আহমেদ। লিখিত বক্তব্যে বলা হয়,  তাঁর প্রতিবেশী বীর মুক্তিযোদ্ধা মতিউর রহমান। উভয়ের বাড়ির সীমানায় ফাঁকা জায়গায় রয়েছে। গত ২০১০ সালে মতিউর রহমানের স্ত্রী কোহিনুর বেগম ওই জায়গা নিজের দাবি করে আদালতে মামলা করেন। পরে ২০১৮ সালে জুলাই মাসে আদালতের মাধ্যমে আপোষনামা করা হয়। আপোষনামায় ওই জায়গা উভয়পক্ষ ব্যবহার করবে বলে সম্মতি জানানো হয়। অথচ বীর মুক্তিযোদ্ধা ওই আপোষনামা অমান্য করে ওই জমি নিজের দাবি করে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। এর আগে ২০০৪ সালে ওই বাড়ির (ইদ্রিস আলীর) পূর্বদিকের গলিপথ নিয়ে তিনি এলাকার ১৭ জন নিরীহ লোকের নামে মামলা করেন। ওই মামলায় বিজ্ঞ আদালতে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় গত ৭ জুলাই ২০১১ সালের তাদেরকে বেকসুর খালাস দেন। তারপরও তিনি বিভিন্নভাবে হয়রানির উদ্দেশ্যে ষড়যন্ত্র করে আসছেন। তিনি মুক্তিযোদ্ধার খেতাব ব্যবহার করে আমাকে রাজাকার আখ্যা দিয়ে জমি দখলের মিথ্যাচার করছেন। অথচ রাজাকারের তালিকায় আমার নাম নেই। প্রতিপক্ষ আমাকে হেনস্তা করতে রাজাকার বানানোর অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে তিনি ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি করেন।
সংবাদ সম্মেলনে সৈয়দপুর ২নং পৌর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক প্যানেল মেয়র হিটলার চৌধুরী ভলু বলেন,  ইদ্রিস আলীর পুত্র কামাল আহমেদ ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতা। তাঁকে রাজাকার বলে অপবাদ ছাড়ানো হচ্ছে। প্রতিপক্ষ মতিউর রহমান বীর মুক্তিযোদ্ধা খেতাব ব্যবহার করে আওয়ামী পরিবারকে অযথা হয়রানি করছেন। প্রতিপক্ষ এ হয়রানি বন্ধ না করলে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ আন্দোলনে নামবে বলে ঘোষণা দেন।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন ডাব্লু, ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল হক চৌধুরী প্রমুখ।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button