জাতীয়

ব্রডব্যান্ডের বিল বেশি নিলেই অভিযোগ

সরকার ঘোষণা দিয়েছে সারাদেশের ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা এক রেটে একই পরিমাণ ইন্টারনেট সেবা কিনতে পারবেন।  গ্রাহকদের জন্য সরকার তিনটি স্তর ঠিক করে দিয়েছে ৫ এমবিপিএস ৫০০, ১০ এমবিপিএস ৮০০ ও ২০ এমবিপিএস এক হাজার ২০০ টাকা।  ঘোষণার দিন (৬ জুন) থেকে এই নতুন নিয়ম কার্যকর হয়েছে।

ধরা যাক, ঢাকার কোনও গ্রাহক মাসে ১০ এমবিপিএস (মেগাবিটস পার সেকেন্ড) ব্যবহারের জন্য বিল দেন মাসে ১ হাজার টাকা।  জুন মাসের বিল (জুলাই মাসে যেটা পাওয়া যাবে) দেওয়ার সময় তিনি পরিশোধ করবেন ৮০০ টাকা।  যারা ৮০০ টাকারও কম দিতেন তাদেরটা সমন্বয় করা হবে বলে জানা গেছে।

যদি কোনও আইএসপি (ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান) মাসিক বিল সরকার ঘোষিত দামে না নেয়, ঘোষিত গতি না দেয় তাহলে তিনি টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থায় অভিযোগ জানাতে পারবেন। শুধু ঢাকা শহর নয়, প্রত্যন্ত এলাকার একজন গ্রাহকও যদি আইএসপি’র দেওয়া প্রতিশ্রুত গতি না পান তাহলে তিনি অভিযোগ জানাতে পারবেন।

বিটিআরসি হটলাইন ১০০ নম্বরে ফোন করে টেলিকম ও সেবা নিয়ে অভিযোগ জানানো যাবে। এছাড়া বিটিআরসির এই লিংকে http://btrc.isslcrm.com/ComplainManagement ঢুকেও অভিযোগ জানানো যাবে।

এদিকে দেশে ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সংগঠন আইএসপিএবির সভাপতি আমিনুল হাকিম জানিয়েছেন, গ্রাহক ঘোষিত গতি, নির্ধারিত দামে ইন্টারনেট সেবা না পেলে আইএসপিএবিকেও অভিযোগ জানাতে পারবেন। [email protected] মেইলে আইডিতে অভিযোগ জানালে সংগঠনটি গ্রাহকের সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নেবে।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে ব্রডব্যান্ডের সংজ্ঞায় সর্বনিম্ন গতি ১০ এমবিপিএস।  গতি এর নিচে হলে তাকে ব্রডব্যান্ড বলা যাবে না,  সেটা হবে ন্যারোব্যান্ড।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button