জাতীয়

মিয়ানমারকে বোঝাতে ভারতকে অনুরোধ করেছেন প্রধানমন্ত্রী

রোহিঙ্গাদের নিজ ভূমি রাখাইনে ফেরতের বিষয়ে মিয়ানমারকে বোঝাতে ভারতকে অনুরোধ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হক ভারতের হোটেল তাজ মহলে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মধ্যে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের পর সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘দুই নেতা রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে আলোচনা করেন এবং তারা দুজনেই রোহিঙ্গাদের তাদের নিজভূমিতে ফেরত পাঠানোর ব্যাপারে একমত হন।’

শেখ হাসিনাকে উদ্ধৃত করে দুদেশের মধ্যে এখন সবচেয়ে ভালো সম্পর্ক বিরাজ করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী মিয়ানমারের সঙ্গে ভারতের সুসম্পর্ক এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে সম্পৃক্ততা কাজে লাগিয়ে রোহিঙ্গাদের তাদের নিজভূমিতে ফেরত পাঠাতে মিয়ানমারকে রাজি করানোর জন্য ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে অনুরোধ করেছেন। এ প্রসঙ্গে সচিব উল্লেখ করেন যে, দুই নেতা এ বিষয়ে নিউইয়র্কেও বৈঠক করেছেন।

ভারতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী ও প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

শেখ হাসিনা আগামী বছর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ সফরের জন্য ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানান।

পররাষ্ট্র সচিব বলেন, রোহিঙ্গা, পানি বণ্টন, ব্লু ইকোনমি, এনআরসি, যোগাযোগ, ব্যবসা-বাণিজ্য, শিক্ষা, যুব ও সংস্কৃতির মতো সাতটি গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু নিয়ে আলোচনা হয়।

এনআরসি নিয়ে ভারতের অবস্থান সম্পর্কে শহীদুল হক বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আবারও বাংলাদেশকে আশ্বস্ত করে বলেছেন, এটি তার দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়।

ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ককে খুবই উষ্ণ ও বন্ধুত্বপূর্ণ বর্ণনা করে পররাষ্ট্র সচিব বলেন, দুই নেতা ব্যবসা-বাণিজ্য বৃদ্ধির লক্ষ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থা জোরদারের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

শহীদুল হক বলেন, দুই নেতা এখন অন্য ছয়টি অভিন্ন নদীর পানি বণ্টনের অপেক্ষায় রয়েছেন। এতে উভয় দেশের জনগণ লাভবান হবে এবং পানির টেকসই ব্যবহার করতে পারবে।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button