জাতীয়

সন্ধ্যায় আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’

বঙ্গোপসাগরের দক্ষিণ পূর্বে অবস্থিত নিম্নচাপটি শক্তি বাড়িয়ে আরো গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। দক্ষিণ আন্দামান সাগরের কাছাকাছি এই গভীর নিম্নচাপের অবস্থান রয়েছে। যে কারণে ইতোমধ্যেই আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। মঙ্গলবার পর্যন্ত মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

ভারতের আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, সোমবার ৬০ থেকে ৭০ কিলোমিটার হতে পারে ‘অশনি’র গতিবেগ। ঝড়ের সর্বোচ্চ গতিবেগ হতে পারে ৮০ কিলোমিটার। মঙ্গলবারের মধ্যে উত্তর মিয়ানমার ও বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্ব উপকূলে পৌঁছাবে এই ঘূর্ণিঝড়।

ভারতের কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতরের বিজ্ঞানী আরকে জানামনি জানান, বঙ্গোপসাগরের ওপরে তৈরি নিম্নচাপটি ধীরে ধীরে উত্তর দিকে এগোচ্ছে। যাত্রাপথেই আরো শক্তি বাড়াবে নিম্নচাপটি। এর জেরে সকাল থেকেই আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে ঝড়-বৃষ্টি শুরু হয়ে যাবে।

তিনি আরো বলেন, সোমবার সকালের মধ্যেই বঙ্গোপসাগরের ওপরে গভীর নিম্নচাপ তৈরি হবে। বেলা বাড়ার সাথে সাথে এর শক্তিও বাড়তে থাকবে, বিকেলের মধ্যেই তা ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে। যদি আবহাওয়ার হঠাৎ কোনো বড় পরিবর্তন না হয়, তবে সন্ধ্যার মধ্যে তা ঘূর্ণিঝড়ের আকার ধারণ করবে।

এর আগে গত শনিবার বিকালে আবহাওয়া দফতর থেকে জানানো হয়েছিল দক্ষিণ-পূর্ব আন্দামান সাগরের ওপরে অবস্থান করা নিম্নচাপটি ধীরে ধীরে উত্তর দিকে এগোতে শুরু করেছে। প্রতি ঘণ্টায় ১২ কিলোমিটার বেগে এগোচ্ছে নিম্নচাপটি।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button