খেলা

শেষ হয়নি ‘নেইমার নাটক’, জানুয়ারিতে দ্বিতীয় পর্ব!

এই গ্রীষ্মে প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি) ছাড়ার সব চেষ্টাই করেছিলেন নেইমার জুনিয়র। এমনকি নিজের গাঁটের অর্থ খরচ করে হলেও সাবেক ক্লাব বার্সেলোনায় ফিরতে চেয়েছিলেন। কিন্তু কিছুতেই কিছু হলো না। তবে নাটকের কিন্তু এখানেই শেষ নয়।

জানুয়ারিতে আসছে ‘নেইমার নাটক’র দ্বিতীয় পর্ব। পরবর্তী দলবদলের বাজারেই তাকে ফের বিক্রির চেষ্টা করবে ফরাসি চ্যাম্পিয়নরা। আর এবারও তাকে কেনার জন্য মাঠে নামবে বার্সেলোনা। এর ইঙ্গিত দিয়েছেন স্বয়ং তার বাবা ও এজেন্ট নেইমার সিনিয়র এবং পিএসজি’র স্পোর্টস ডিরেক্টর লিওনার্দো।

‘টুট্টোস্পোর্ট’র রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি ফের নেইমারকে দলবদলের বাজারে তুলতে চায় পিএজসি। পিএসজি ডিরেক্টর লিওনার্দো বলেন, ‘আমরা খেলোয়াড়দের নিয়ে (গ্রীষ্মে) আলোচনায় বসার ব্যাপারে প্রস্তুত ছিলাম। কিন্তু কোনো চুক্তিতে উপনীত হওয়া সম্ভব হয়নি। যদি (জানুয়ারিতে) কেউ তাকে কিনতে চায়, তাহলে তারা প্রস্তাব দিতে পারে এবং আমরা দেখব সেটা সব পক্ষকেই সন্তুষ্ট করতে পারে কি না।’

পিএসজিতে নেইমারের চুক্তির মেয়াদ এখনও ৩ বছর বাকি। কিন্তু তার বাবা সিনিয়র নেইমার দাবি করছেন, পিএসজি থেকে আগামী দলবদলের মৌসুমেই চলে যাবেন তার ছেলে। এমনকি কোন ক্লাবে তারও ইঙ্গিত দিলেন।

এডিনবরা স্পোর্টস কনফারেন্সে নেইমার সিনিয়র বলেন, ‘দুই ক্লাবের (বার্সা ও পিএসজি) দরকষাকষি এখনও শেষ হয়নি। একজন ব্রাজিলিয়ান যেখানে সে সুখে থাকবে সেখানেই যেতে চায় এবং সে (নেইমার) বার্সেলোনায় খুব সুখে ছিল। যখন তার বন্ধুরা জানতে চায় সে ফিরতে চায় কি না, এটা তাকে কষ্ট দেয়।’

বার্সা সর্বশেষ ‘ক্যাশ প্লাস প্লেয়ার’ অফার দিয়েছিল, যেখানে ইভান রাকিতিচ ও উসমানে দেম্বেলেকে যুক্ত করা হয়েছিল। রাকিতিচ পিএসজিতে ফেরার প্রস্তুতি নিয়েই রেখেছিলেন। কিন্তু দেম্বেলে রাজি হননি। ফলে চুক্তিও আর আলোর মুখ দেখেনি।

চুক্তি না হওয়ায় হতাশ নেইমারের বাবা বলেন, ‘একজন এজেন্ট হিসেবে, আপনি অনেক দুর্বল অনুভব করবেন যখম কোনো পরিকল্পনা আপনাকে আসতে কিংবা যেতে না দেবে। তার (নেইমারের) চুক্তিতে কোনো রিলিজ ক্লজ ছিল না এবং এটাই সব ঝামেলার মূল কারণ। আমরা একটি চুক্তির ব্যাপারে সব চেষ্টাই করেছি।’

সদ্য বন্ধ হওয়া দলবদলের বাজারে সবচেয়ে আলোচিত বিষয় ছিল ‘নেইমার নাটক’। ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডকে কেনার জন্য বার্সার দেওয়া চারটি প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়ে নাটকের উত্তেজনা চরমে তুলেছিল পিএসজি। শেষে নিজেরাই ‘ফাইনাল’ অফার দিয়ে খালি হাতে আলোচনার টেবিল ছেড়েছে লিগ ওয়ানের চ্যাম্পিয়নরা।

একের পর এক নাটকের পর অবশেষে পিএসজিতেই থেকে গেছেন নেইমার। ক্লাবের স্পোর্টিং ডিরেক্টর লিওনার্দো জানিয়েছিলেন, নেইমার সত্যিই ক্লাব ছাড়তে চেয়েছিলেন। তবে এজন্য যে বিশাল অঙ্কের অর্থ তারা দাবি করছে তা পরিশোধ করতে হবে। আর সেই অর্থমূল্য ২৫০ মিলিয়ন ইউরোর কম নয়, যা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে বার্সা।

এদিকে ব্যক্তিগতভাবে পিএসজি ছাড়ার জন্য চেষ্টা করেছেন নেইমার নিজেও। সাবেক বার্সা সতীর্থদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করেছেন, বর্তমান ক্লাবকেও নিজের ইচ্ছের কথা জানিয়েছেন। এমনকি দলদবলের অর্থের একটা অংশ নিজেই দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু পিএসজির কাতারি মালিকদের মন তাতেও গলেনি। ফলে অভিমান, অতৃপ্তি নিয়ে পিএসজিতেই থাকতে হচ্ছে তাকে। তবে জানুয়ারিতেই ফের জমতে চলেছে ‘নেইমার নাটক’: দ্বিতীয় পর্ব।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button