আন্তর্জাতিক

ইরানে আটক তিন নাগরিককে আইনি সহায়তা দিচ্ছে অস্ট্রেলিয়া

ইরানে আটক নিজ দেশের তিন নাগরিককে আইনি সহায়তা দিচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। হরমুজ প্রণালীতে মার্কিন নেতৃত্বাধীন মিশনে অস্ট্রেলিয়ার যোগ দেওয়ার ঘোষণার পর তাদের আটক করা হয়েছিল। এদের মধ্যে দুই নারী রয়েছেন, যারা যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়ার দ্বৈত নাগরিক। আটকৃতদের তেহরানের কুখ্যাত এভিন কারাগারে রাখা হয়েছে। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।.

অস্ট্রেলিয়ার সরকার বুধবার জানিয়েছে, তাদের তিন নাগরিককে আটক করেছে ইরান। আল জাজিরা-র খবরে বলা হয়েছে, আটকৃতদের আইনি সহায়তা দিচ্ছে ক্যানবেরার বাণিজ্য ও পররাষ্ট্র বিভাগ।

অস্ট্রেলিয়া সরকারের একজন মুখপাত্র এএফপি-কে বলেন, ‘ইরানে আটক অস্ট্রেলিয়ার তিন নাগরিকের পরিবারকে কনস্যুলার সহায়তা দিচ্ছে দেশটির পররাষ্ট্র ও বাণিজ্য বিভাগ।’ গোপনীয়তা রক্ষার বাধ্যবাধকতা থাকায় এ নিয়ে বিস্তারিত কথা বলতে রাজি হননি তিনি।

এর আগে যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তেহরানের এভিন কারাগারে দুই ব্রিটিশ-অস্ট্রেলীয় নারীকে আটক রাখা হয়েছে। তাদের মধ্যে এক নারীর ছেলে বন্ধুও গ্রেফতার হয়েছেন। অস্ট্রেলিয়ার রাষ্ট্রীয় সম্প্রচারমাধ্যম জানিয়েছে, ওই নারীর ছেলে বন্ধুকে কোথা থেকে আটক করা হয়েছে তা পরিষ্কার নয়। দুই নারীর বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ আনা হয়েছে কিনা, তাও পরিষ্কার নয়।

ইরানে দ্বৈত নাগরিকদের আটক সংখ্যা বাড়তে থাকার ঘটনাকে কূটনৈতিক কৌশল হিসেবে দেখছেন পশ্চিমা বিশ্লেষকরা। গত আগস্টে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন বিতর্কিত মার্কিন মিশনে মাঝারি মাত্রায় পৃষ্ঠপোষকতার ঘোষণা দেন। যাতে একটি যুদ্ধজাহাজ এবং পি-৮ নৌ নজরদারি বিমান এবং প্রয়োজনীয় সংখ্যক কর্মীকে অন্তর্ভুক্ত করার কথা বলেন তিনি। এই মিশনে ব্রিটেনও রয়েছে।

চলতি সপ্তাহের শুরুতে ইরান সফরের ক্ষেত্রে নাগরিকদের অপরিহার্যতা পুনর্বিবেচনার পরামর্শ দিয়ে ভ্রমণ নির্দেশনা হালনাগাদ করে অস্ট্রেলিয়া। এছাড়া ইরাক ও আফগানিস্তান সীমান্তে না যাওয়ারও পরামর্শ দেওয়া হয়।

ইরানের রাজধানী তেহরানের উত্তরাঞ্চলে অবস্থিত কুখ্যাত কারাগার এভিন। রাজনৈতিক বন্দি, ভিন্নমতাবলম্বী এবং সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের দায়ে অভিযুক্তদের সেখানে রাখা হয়।

গত ফেব্রুয়ারিতে দেশের শীর্ষ পরিবেশবিদ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সাইয়্যেদ ইমামি এভিন কারাগারে অন্তরীণ অবস্থায় রহস্যজনকভাবে মারা যান।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button