আন্তর্জাতিক

সাগরের নিচে অগ্ন্যুৎপাত, টোঙ্গা-ফিজি-নিউজিল্যান্ডে সুনামি সতর্কতা

সমুদ্রের তলদেশে আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতের ঘটনায় নিউজিল্যান্ড, টোঙ্গা ও ফিজিসহ বেশ কয়েকটি দেশে সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়েছে। তবে এ ঘটনায় এখনো কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। জানা গেছে, হুঙ্গা টোঙ্গা-হুঙ্গা হাপাই নামের আগ্নেয়গিরিটিতে অগ্ন্যুৎপাতের এটি সর্বশেষ ঘটনা। এর আগেও এটিতে অগ্ন্যুৎপাত হয়েছে। শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

টোঙ্গা থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে দেখা গেছে, বিশাল ঢেউ উপকূলের ঘর-বাড়িতে আছড়ে পড়ছে। এরই মধ্যে সেখানের উপকূলে বসবাস করা মানুষকে উচু স্থানে চলে যাওয়ার আহ্বান করা হয়েছে।

ফিজির এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, আট মিনিট ব্যাপকভাবে আগ্নেয়গিরিটিতে অগ্ন্যুৎপাত হয়। এ সময় বজ্রপাতের মতো বিকট শব্দ হয় বলেও জানান তিনি।

টোঙ্গা জিওলজিক্যাল সার্ভিসেস জানায়, আগ্নেয়গিরি থেকে গ্যাস, ধোঁয়া ও ছাই আকাশের ২০ কিলোমিটারের মধ্যে পৌঁছেছে। নিউজিল্যান্ডের সামরিক বাহিনী জানায়, তারা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে। যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় তারা প্রস্তুত আছে বলেও জানানো হয়।

অস্ট্রেলিয়ার আবহাওয়া বিভাগ জানায়, টোঙ্গার রাজধানী থেকে আগ্নেয়গিরিটি ৬৫ কিলোমিটার উত্তরে অবস্থিত। সেখানের উপকূলে এক দশমিক দুই কিলোমিটার সুনামির ঢেউ লক্ষ্য করা গেছে। ঘটনাস্থল থেকে নিউজিল্যান্ডের দূরত্ব দুই হাজার তিনশ কিলোমিটার এবং ফিজির দূরত্ব ৮০০ কিলোমিটার।

নিউজিল্যান্ডের জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংস্থা জানায়, দেশের কিছু অংশে শক্তিশালী ও অস্বাভাবিক স্রোত দেখা যেতে পারে। স্থানীয় একটি আবহাওয়া অফিস জানায়, আগ্নেয়গিরিটি অত্যন্ত শক্তিশালী। নিউজিল্যান্ড থেকে যার শব্দ শোনা যাচ্ছে।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button