খুলনা বিভাগসারাদেশ

মিলে-মিশে থাকতে চাই, কার সাথে বিরোধ নাই

ভাঙ্গা(ফরিদপুর) প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং ফরিদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন বলেছেন,আমি কার সাথে বিরোধ করতে আসি নাই,আমি রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান,আমি আপনাদের সাথে সুখে-দুখে: থাকতে চাই।তিনি আর বলেন, পদ্মা সেতু নির্মানের ফলে আমাদের ভাগ্য বদলে গেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কল্যাণেই সারাদেশের ন্যায় এই এলাকায় এত উন্নয়ন সম্ভব হয়েছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দিতে তিনি দিন-রাত নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।

সোমবার বিকালে ভাঙ্গা উপজেলার ঘারুয়া ইউনিয়নের ঘারুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত এক গণ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন।নিক্সন চৌধুরী বলেন, দক্ষিণাঞ্চলে প্রবেশদ্বারে পদ্মা সেতু ও হাইওয়ে এক্সপ্রেস নির্মাণ করার ফলে এলাকার পরিবেশ বদলে গেছে। প্রধানমন্ত্রীর অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে আমূল পরিবর্তন ঘটিয়েছেন তিনি। আমরা তার হাতকে আরও শক্তিশালী করতে এলাকায় উন্নয়ন দিয়ে যাচ্ছি। ফরিদপুর-৪ আসনের জনগণ পর পর দুইবার আমাকে এমপি নির্বাচিত করায় জনগণের এই ঋণ আমি কোনোদিন শোধ করতে পারবো না। তেমনি জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আগামীতেও দলকে শক্তিশালী করতে সর্বদা কাজ করে যাবো।বক্তব্যের এক পর্যায়ে তিনি হেফাজত ইসলামের নেতা মামুনুল হককে উদ্দেশ্যে করে বলেন, আপনি ফরিদপুরে একটি ইসলামি মাহফিলে আমার বাসায় দাওয়াত খেতে চেয়েছেন। আমি আপনার দাওয়াতকে কবুল করলাম। আপনাকে দেশের সকল আলেম-ওলামাদের নিয়ে যে কোন দিন আমার বাসায় আসার অনুরোধ করলাম। আসুন আমরা সবাই মিলে উন্নয়ন দিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ে তুলি। রাজনীতিতে শেষ কথা বলতে কিছু নেই। আপনি বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে সুন্দর সুন্দর কথা বলেছেন। আপনার পিতা বঙ্গবন্ধুর নিকটতম ব্যক্তি ও তাকে ভালবাসতেন। যদি তাই হয় তাহলে আসুন ঐক্যবদ্ধ হয়ে আগামীতে কাজ করি। নিক্সন চৌধুরী মামুনুল হক সম্পর্কে তার দেয়া পূর্বর বক্তব্য সম্পর্কে বলেন,জাতির জনকের ব্যাপারে কিছু কথা বললে আমি ওই বক্তব্য সম্পর্কে প্রতিবাদ করেছিলাম। ইসলামী সম্পর্কে জ্ঞান রাখা আলেমদের ব্যাপারে সব সময়ই আমি শ্রদ্বাশীল। ঘারুয়া ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যাপক শফিউদ্দিন মোল্লার সভাপতিত্বে অধ্যক্ষ সাখাওয়াৎ হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শামসুল হক ভোলা মাস্টার, প্যানেল চেয়ারম্যান শাহিনুর রহমান শাহিন, উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম হাবিবুর রহমান, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান শাহাদাৎ হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী হেদায়েত উল্লাহ সাকলাইন , ভাঙ্গা উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রাজিবুল হাসান(বাবু), ইউপি চেয়ারম্যান নুরে আলম ছিদ্দিকী লাবলু,লিটন মাতুব্বর,তরিকুল ইসলাম তারেক,পরিমল চন্দ্র দাস,কাওসার ভ’ইয়া, সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী মতিয়ার রহমান, প্রবাসী মনসুর মুন্সি,স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ স¤পাদক জাহিদ মুন্সি, বিভিন্ন ইউনিয়ন ও আওয়ামীলীগ সহ অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ প্রমুখ। এর আগে এমপি নিক্সন চৌধুরীকে মানপত্র ও ফুলের নৌকা উপহার দিয়ে হাজার হাজার জনতা সংবর্ধনা দেন। এ সময় জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শামসুল হক ভোলা মাস্টার বলেন, বঙ্গবন্ধুকে দেখেছি, এখন দেখছি তারই দৌহিত্র নিক্সন চৌধুরীকে। যিনি সকলকে তার সমমর্যাদা অনুযায়ী সম্মান প্রদান করে থাকেন। আগামীতে এই নিক্সন চৌধুরী তার কর্ম গুণে দেশকে আরও অনেক সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবে বলে আমি আশাবাদী।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button