সারাদেশ

মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যুতে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা প্রদাণ না করায় ওসির বিরুদ্ধে মানববন্ধন

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলায় একজন মুক্তিযোদ্ধার জানাযার পূর্বে
শিবগঞ্জ থানা পুলিশ কর্তৃক রাষ্ট্রীয় মর্যাদা প্রদাণ না করায় মানববন্ধন
কর্মসূচি পালন করেছেন মুক্তিযোদ্ধারা।
এ উপলক্ষ্যে সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় বিনোদপুর মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট
কার্যালয়ের সামনে বিনোদপুর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল এক বিশাল
মানববন্ধনের আয়োজন করেন। এ সময় ঘণ্টাব্যাপি চলা মানববন্ধনে শিবগঞ্জ থানা
পুলিশ কর্তৃক মৃত মুক্তিযোদ্ধা মেজর বাহারাম আলির জানাজার পূর্বে
রাষ্ট্রীয় মর্যাদা প্রদাণ না করার সমালোচনা করে বক্তব্য প্রদাণ করেন
চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক সাংগঠনিক কমান্ডার তরিকুল
ইসলাম, সাবেক সাংস্কৃতিক কমান্ডার মশিউর রহমান, শহীদ পরিবারের সন্তান
আব্দুর রাকিব রহমান, মুক্তিযোদ্ধা জিন্নুর রহমান, সাইদুর রহমান, শরীফ
উদ্দিন আহমেদ জেন্টু এবং উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের যুগ্ম
সাধারণ সম্পাদক মাহিদুর রহমান।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন- একজন মুক্তিযোদ্ধাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা না দিয়ে
শিবগঞ্জ থানার ওসি সিকদার মশিউর রহমান সরকারি নির্র্দেশনা অমান্য করেছে
যা রাষ্ট্রদ্রোহীর সামিল। আর তাই মানববন্ধন থেকে অবিলম্বে শিবগঞ্জ থানার
ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে প্রত্যাহারের দাবী জানান মুক্তিযোদ্ধারা।
উল্লেখ্য, শিবগঞ্জ উপজেলার বিনোদপুর ইউনিয়নের একবরপুর গ্রামের মৃত
পায়তগাম আলির ছেলে সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সুবেদার মেজর মুক্তিযোদ্ধা
বাহারাম আলি (৬৫) সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে প্রায় দুই মাস চিকিৎসাধীন
থাকার পর গত ১৪ সেপ্টেম্বর শনিবার ভোর ৪টার দিকে ইন্তেকাল করেন। এদিকে ওই
মুক্তিযোদ্ধার জানাজার নামাজের সময় শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা
(ওসি) সিকদার মশিউর রহমানকে জানানো হলে তিনি সন্ধ্যার পর গার্ড অফ অনার
দেয়া হবেনা বলে মুক্তিযোদ্ধাদের জানান। পরে বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী
কর্মকর্তা চৌধুরী রওশন ইসলাম ও পুলিশ সুপার টি এম মোজাহিদুল ইসলামকে
জানানো হলে তারা গার্ড অফ অনার দেয়ার বিষয়ে আশ্বস্ত করলেও রাত ৮টা
পর্যন্ত অপেক্ষার পর বীর মুক্তিযোদ্ধা বাহারাম আলির মরদেহ পুলিশ কর্তৃক
রাষ্ট্রীয় মর্যাদা ছাড়াই দাফন করা হয়। যা মুক্তিযোদ্ধাসহ বিভিন্ন শ্রেণি
পেশার মানুষের মাঝে তীব্র ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button