রংপুর বিভাগ

নীলফামারীতে ৫ জঙ্গিকে আটক করেছে র‌্যাব

নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি ॥ নীলফামারী সদরের সোনারায়ে ৫ জঙ্গিকে আটক করেছে র‌্যাব। এসময় সেখান থেকে একটি বিষ্ফোরনযোগ্য একটি বোমা উদ্ধার করা হয়। আজ বেলা ১১ টার দিকে ঐ ইউনিয়নের মাঝাপাড়া থেকে তাদের আটক করা হয়।
র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক খন্দকার আল মঈন জানান, শরিফুল ইসলাম ওরফে শরিফ তার বাড়িতে বোমা তৈরী করতো এবং দীর্ঘ দিন থেকে জঙ্গি কার্যক্রমের সাথে জড়িত, এমন তথ্য রয়েছে র‌্যাবের কাছে। এমন তথ্যেও ভিত্তিতে শনিবার ভোররাত থেকে শরিফের বাড়ি ঘিওে রাখে র‌্যাব-১৩ নীলফামারী সিপিসির সদস্যরা। পরে সেখানে র‌্যাবের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা ও বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দলের সদস্যরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে সেই বাড়ি থেকে একটি বিষ্ফোরণযোগ্য শক্তিশালী বোমা ও বোমা তৈরীর সরঞ্জাম উদ্ধার করে। তবে র‌্যাব পৌছার আগেই কৌশলে পালিয়ে যায় শরিফ। উদ্ধারের পর সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে একটি ফাঁকা স্থানে বোমাটির বিষ্ফোরণ ঘটান বিষ্ফোরক দলের সদস্যরা। এর আগে সোনারায় ও সংগলশী ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ৫ জঙ্গি সদস্যকে আটক করা হয়। এসময় শরিফুলের স্ত্রী মিনা ও শ^াশুরীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। আটকৃতদেও সবাইকে রংপর র‌্যাব কার্যালয়ে নেয়া হয়েছে।
আটকৃতরা হলেন, ওহিদুল ইসলাম, ওয়াহেদ আলী, আব্দুল্লাহ আল মামুন, জাহিদুল ইসলাম ও নুর আমীন।
র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক খন্দকার আল মঈন জানান, আটকৃতরা সবাই জেএমবি সদস্য। এদেও মধ্যে ওয়াহেদ বোমা তৈরীর প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। শরিফও জঙ্গি সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত এবং তাকে গ্রেফতাওে অভিযান চলছে বলে জানান এই পরিচালক।
তবে জঙ্গি কার্যক্রমের সাথে শরিফের সম্পৃক্তার বিষয়ে হতবাক এলাকাবাসী ও পরিবারের সদস্যরা।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button