রংপুর বিভাগ

ফুলবাড়ীতে কারখানার সিসার বিষক্রিয়ায় ২০টি গরুর মৃত্যু

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে গত এক সপ্তাহে অজ্ঞাত রোগে ২০টি গরুর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় দুইটি বিশেষ তদন্ত টিম গঠন করা হয়েছে। তদন্ত টিমের সদস্যরা এলাকাবাসীকে সতর্ককরণসহ রহস্য উদঘাটনে কাজ করছেন। তদন্ত টিম প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে, কারখানার সিসার বিষক্রিয়ার কারণেই ওই গরুগুলোর মৃত্যু হয়েছে।
গত শনিবার বিকেলে উপজেলার আলাদিপুর ইউনিয়নের বাসুদেবপুর পাকড়ডাঙ্গা গ্রামে (ফুলবাড়ী-মাদিলাহাট সড়ক) ব্যাটারি রিসাইকেল কারখানা স্থানে উপস্থিত হয়ে নমুনা সংগ্রহ করেন তদন্ত টিমের সদস্যরা। উপজেলার প্রাণিসম্পদের ভেটেনারী সার্জন ডা. নেয়ামত আলীর নেতৃত্বে ৫ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত টিম এবং অপর আরেকটিতে প্রাণি সম্পদ সম্প্রসারণ কর্মকর্তা ডা. শাহানুর আলমের নেতৃত্বে ৫ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত টিম রহস্য উদঘাটনে কাজ করছেন।
উপজেলা প্রাণিসম্পদ ভেটেনারী সার্জন ডা. নেয়ামত আলী বলেন, অজানা কারণে গরু মারা যাওয়ার ঘটনায় দুইটি বিশেষ তদন্ত টিম কাজ করছে। টিমের সদস্যরা সরেজমিন তদন্ত করছে, ধারণা করা হচ্ছে এটি সিসার বিষক্রিয়ার কারণে ঘটেছে। এ ঘটনায় এলাকাবাসীকে সর্তকীকরণসহ গরু খামারিদের বিভিন্ন দিকনিদের্শনা দেয়া হচ্ছে। মাইকিংয়ের মাধ্যমে ওই এলাকার আশেপাশের ঘাস ও খড় গবাদিপশুকে না খাওয়ানোর জন্য অবহিত করা হচ্ছে। কারখানা এলাকার বিষাক্ত মাটি, ঘাস এবং খড়ের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। এছাড়া কারখানা এলাকাটি গবাদিপশুর চারণভূমি হিসেবে ব্যবহার না করার জন্য সতর্কিকরণ সাইনবোর্ড টানিয়ে দেয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত ওই খামারিদের তালিকা করে ক্ষতিপূরণের বিষয়ে উপজেলা প্রশাসনের সাথে কথা বলা হচ্ছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার রিয়াজ উদ্দিন বলেন, বিষয়টি নিয়ে সার্বক্ষণিক মনিটরিং করা হচ্ছে। ওই এলাকা থেকে নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট আসার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
উল্লেখ্য, উপজেলার দক্ষিণ বাসুদেবপুর গ্রামের ফয়জুর রহমান মুকুলের গাই বাছুরসহ ৫টি গরু, বাদশা মিয়ার ২টি গরু, সোহেল রানার ১টি ও হাফিজের ১টি গরুসহ ওই গ্রামে গত সাত দিনে ১০টি গরু মারা গেছে। এছাড়া মহেষপুর গ্রামের গ্রামের জাকিরের ১টি, শফিকুলের ১টি, বেলালের ১টি, মুক্তারের ২টি, মজিবরের ২টিসহ ওই গ্রামের ১০টি গরু মারা গেছে। এ নিয়ে দুই গ্রামের ২০টি গরুর মৃত্যু হয়েছে।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button