খেলা

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মাহমুদউল্লাহ ও মুশফিক’কে বাদ দিয়ে দল ঘোষণা

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আসন্ন টি-টোয়েন্টি সিরিজের দল থেকে বাদ পড়েছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। মাহমুদউল্লাহর মতো মুশফিকুর রহিমেরও জায়গা হয়নি দলে। দলকে নেতৃত্ব দেবেন নুরুল হাসান সোহান। দলে ডাক পেয়েছেন অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেটার পারভেজ হোসেন ইমন ও পেসার হাসান মাহমুদ।

শুক্রবার (২২ জুলাই) টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সঙ্গে বৈঠক শেষে দল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস, টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন ও নির্বাচক আব্দুর রাজ্জাক।

বৈঠক শেষে জালাল ইউনুস জানিয়েছেন নতুন ব্র্যান্ডের টি-টোয়েন্টি টিমের কথা। বিসিবি চিন্তাভাবনা করেই সোহানের নেতৃত্বে সিনিয়রদের বাইরে রেখে দলটি গঠন করেছে। মাহমুদউল্লাহ-মুশফিককে বাদ পড়লেও সাকিব আগে থেকেই ছুটি নিয়েছেন এই সিরিজ খেলবেন না জানিয়ে।

জালাল ইউনুস বলেন, ‘এই দলটাকে সামলানোর জন্য নুরুল হাসান সোহানকে অধিনায়কত্ব দিচ্ছি। সেটা আমরা আজকে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে জানিয়ে দিয়েছি। মুশফিকও জানে, সাকিবও জানে। তাদের জায়গায় আমরা নতুন খেলোয়াড় চেষ্টা করছি। এটা শুধু জিম্বাবুয়ে সিরিজের জন্য দেখতে চাচ্ছি তাদের ফলাফল, পারফরম্যান্স কি হয়। সেটা দেখার জন্য আপনারা বলতে পারেন নতুন ব্র্যান্ডের একটা দল যাচ্ছে।’

তরুণ দল পাঠানোর কথা জানিয়ে জালাল আরও বলেন, ‘আপনারা জানেন যে টি-টোয়েন্টিতে আমাদের মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ অধিনায়ক ছিল। কয়েকদিন ধরে আলোচনা চলছিল অধিনায়কত্ব ইস্যু নিয়ে। সম্মানের সঙ্গে আমরা রিয়াদকে ডেকেছিলাম, টি-টোয়েন্টি দল নিয়ে আলাপ করেছি। তার সঙ্গে আলাপ আলোচনা করে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে এবার আমরা একটা নতুন দল পাঠাতে চাচ্ছি জিম্বাবুয়েতে। এর মধ্যে কিছু সিনিয়র খেলোয়াড়ও থাকছে না। আসলে দেখার জন্য তাদেরকে (তরুণদের) পাঠানো হচ্ছে।’

তারুণ্য নির্ভর টি-টোয়েন্টি দলে ডাক পাওয়া ইমন এর আগেও ডাক পেয়েছিলেন বিশ্বকাপের পর পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে। যদিও কোনো ম্যাচে সুযোগ হয়নি বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানের। এ ছাড়া দলে ফিরেছেন পেসার হাসান মাহমুদ। এই পেসারের ওয়ানডে অভিষেকই হয়েছিল জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২০২০ সালের মার্চে। এরপর করোনা আর ইনজুরি মিলিয়ে আর সুযোগ আসেনি হাসানের।

মাহমুদউল্লাহ-মুশফিক ছাড়া টি-টোয়েন্টি দলে কোনো পরিবর্তন ঘটেনি। সবশেষ উইন্ডিজ সফরে থাকা ক্রিকেটাররাই আছেন ১৫ সদস্যের দলে।

চলতি মাসের ৩০ তারিখ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি অনুষ্ঠিত হবে। পরেরদিন হবে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি। আর তৃতীয় টি-টোয়েন্টি হবে ০২ আগস্ট। তিনটি ম্যাচই হবে হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে।

টি-টোয়েন্টি স্কোয়াড:
নুরুল হাসান সোহান (অধিনায়ক), মুনিম শাহরিয়ার, এনামুল হক বিজয়, লিটন দাশ, আফিফ হোসেন, শেখ মাহাদী, নাসুম আহমেদ, তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান, হাসান মাহমুদ, মোসাদ্দেক হোসেন, নাজমুল হোসেন শান্ত, মেহেদী হাসান মিরাজ ও পারভেজ হোসেন ইমন।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button