খেলালিড নিউজ

ড্র মেনে নিয়েছে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা

শুরুর দিকে দ্রুত উইকেট তুলে নিলেও পরবর্তীতে নিরোশান ডিকওয়েলা ও দীনেশ চান্দিমালের জুটি ভাঙতে পারেনি বাংলাদেশ। তাতে পঞ্চম দিনের শেষ বিকেলে এসে ড্র মেনে নেয় দুই দলের অধিনায়ক।

চা বিরতির আগে চান্দিমাল-ডিকওয়েলার প্রতিরোধ- করুনারত্নের বিদায়ের পর প্রতিরোধ গড়ে তুলেছেন দীনেশ চান্দিমাল এবং নিরোশান ডিকওয়েলা। সপ্তম উইকেট জুটিতে তারা দুজনে মিলে যোগ করেছেন ৪৪ রান। চা বিরতিতে যাওয়ার আগে ৩২ রানে ডিকওয়েলা এবং ১৪ রানে অপরাজিত রয়েছেন চান্দিমাল। এদিকে ১৩৭ রানে এগিয়ে রয়েছে শ্রীলঙ্কা।

ধনাঞ্জয়াকে ফিরিয়ে ইনিংসে প্রথম শিকার সাকিবের- অধিনায়ক করুনারত্নেকে হারিয়ে আগেই কিছুটা ব্যাকফুটে চলে যায় শ্রীলঙ্কা। এবার ধনাঞ্জয়া ডি সিলভাকে দ্রুত ফিরিয়ে ম্যাচে আরও ভালোভাবে নিয়ন্ত্রণ নিলো বাংলাদেশ। এই লঙ্কান অলরাউন্ডারকে মুশফিকুর রহিমের ক্যাচ বানিয়ে সাজঘরে ফিরিয়েছেন সাকিব আল হাসান।

মুমিনুলের দুর্দান্ত ক্যাচে ফিরলেন করুনারত্নে- লাঞ্চ থেকে ফেরার চতুর্থ ওভারেই শ্রীলঙ্কা শিবিরে আঘাত হানেন তাইজুল ইসলাম। বাঁহাতি এই স্পিনারের আউট সাইড অফ স্টাম্পের ফুল বলে মিড উইকেট দিয়ে খেলতে গিয়ে আউট হয়েছেন দিমুথ করুনারত্নে। মিড উইকেটে থাকা মুমিনুল হকের দুর্দান্ত ক্যাচে ৫২ রানে ফেরেন লঙ্কান অধিনায়ক।

প্রথম ইনিংসে ১৯৯ করা ম্যাথিউস ফিরলেন ০ রানে- মেন্ডিস ফেরার পর করুনারত্নের সঙ্গে যোগ দেন আগের ইনিংসে ১৯৯ রান করা অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। তিনি কোনো রান করার আগেই তাইজুলের বলে তার হাতেই ক্যাচ তুলে দিয়ে ফিরেছেন।

আগ্রাসী মেন্ডিসকে ফেরালেন তাইজুল- চতুর্থ দিনের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ব্যাটিং শুরু করেন দুই ব্যাটার দিমুথ করুনারত্নে ও কুশাল মেন্ডিস। এর মধ্যে খালেদ আহমেদের এক ওভারেই টানা তিনটি চার মেরেছেন মেন্ডিস। তাইজুল ইসলামের এক ওভারেও তারা ৯ রান নিয়েছেন। নাঈম হাসানের এক ওভারেও ১২ রান নিয়েছেন মেন্ডিস-করুনারত্নে।

দুইজনই বাংলাদেশের ফিল্ডারদের ভুলে একবার করে জীবন পেয়েছেন। ব্যক্তিগত ৪০ রানে তাইজুল ইসলামের বলে ইন সাইড এজ হয়েও বেঁচে যান মেন্ডিস। কিপার ও ফার্স্ট স্লিপের ফাঁক গলে বল চলে যায় থার্ড ম্যান অঞ্চলে। এরপর সাকিব আল হাসানের একটি বল করুনারত্নের ব্যাটে লেগে প্যাড ছুঁয়ে উইকেটের পেছনে গিয়েছিল।

যদিও তা লুফে নিতে পারেননি লিটন দাস। তাইজুলের লেংথ বল ব্যাটে ছোঁয়াতে পারেননি মেন্ডিস। ফলে বল অফ স্টাম্পে আঘাত হানে। এমন বোল্ডে ৪৩ বলে ৪৮ রানের ইনিংস শেষ হয় মেন্ডিসের। তিনি এই ইনিংস খেলার পথে ৮টি চার ও একটি ছক্কা মেরেছেন।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button