খেলা

মেসির সব গোল লিখে রাখেন ১০০ বছর বয়সী এই বৃদ্ধ

লিওনেল মেসি, আর্জেন্টিনার জীবন্ত কিংবদন্তি। ফুটবল ইতিহাসে অন্যতম মহানায়ক। অথচ তার শোকেসে ছিল না আর্জেন্টিনার হয়ে কোন ট্রফি। যা লিওনেল মেসিকে ভারাক্রান্ত করে রেখেছিল পুরো ক্যারিয়ারে। বার্সেলোনার হয়ে কত কিছুই না জিতেছেন তিনি। তবে দেশের হয়ে কিছু জেতার আক্ষেপ ছিল আর্জেন্টাইন তারকার। অবশেষে কোপার শিরোপা জিতে সেই দুঃখ ঘুচলো মেসির। কোপা চলাকালীন সময়েই বার্সার সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে যায় আর্জেন্টিনার তারকা এই ফুটবলার। ফ্রি এজেন্ট বলে অনেক দলই মেসিকে পেতে চেয়েছে। কিন্তু শৈশবের বার্সেলোনা ছাড়ছেন না তিনি। তাইতো অর্ধেক বেতনেও নতুন করে ৫ বছরের চুক্তি নবায়ন করতে যাচ্ছেন মেসি।ফুটবল বিশ্বে মেসির আছে অগণিত ভক্ত। যারা মেসিকে ধারণ করেন তাদের অন্তরে। মেসি যেন তাদের জীবনেরই একটা অংশ। এমনই এক মেসিভক্তকে পাওয়া গেল আর্জেন্টিনায়। তার নাম ডন হেরনান। ১০০ বছরে পা রেখেছেন এই শতবর্ষী। মেসির এতটাই কঠিন ভক্ত যে, এই ফুটবল তারকার সব গোল খাতায় লিখে রাখেন তিনি। আর্জেন্টাইন তারকার হাতে কোপা আমেরিকা শিরোপা দেখে খুব খুশি হয়েছেন হেরনান। তথ্যপ্রযুক্তির এই যুগে যে কেউ ইন্টারনেটে ঢু মারলেই জানতে পারে কার গোলসংখ্যা কত। কিন্তু হেরনান সেই যুগের, যারা প্রতিটি ম্যাচের খুঁটিনাটি টুকে রাখতেন। মুখে মুখে মনে রাখতেন পরিসংখ্যান। বার্সেলোনা ও আর্জেন্টিনার হয়ে মেসি কবে, কোথায়, কখন, কোন ম্যাচে কত গোল করেছেন সব খাতায় লিখে রেখেছেন শতবর্ষী এই বৃদ্ধ। এটি প্রকাশ্যে নিয়ে এসেছে সেই লোকটির নাতি হুলিয়ান মাস্ত্রাঙ্গেলো। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মেসির প্রতি তার দাদার এই ভালোবাসা দেখাতে গিয়ে লিখেছেন, ‘প্রযুক্তি সমন্ধে তার কোনো ধারণা নেই। তিনি ফোন, ইন্টারনেট, কম্পিউটার, কিছুই ব্যবহার করেন না। খাতায় তিনি মেসির প্রতিটি গোল লিখে রাখেন। সব ম্যাচের ব্যাপারেও লেখা থাকে খাতায়। টিভি দেখতে না পারার পর থেকে সব ম্যাচের খোঁজখবর তিনি আমার কাছ থেকে জেনে নেন। মেসি কত গোল করলেন, সেটা জেনে নেন।’

এই যুগে এমন ভক্ত খুঁজে পাওয়া মুশকিল। মেসির কানেও পৌঁছে গেছে এই ভক্তের কাণ্ড। তাইতো শতবর্ষী এই ভক্তকে ভিডিওবার্তায় শুভেচ্ছা জানিয়েছেন স্বয়ং লিওনেল মেসি নিজে। ভিডিওবার্তায় মেসি বলেন, ‘কেমন আছেন! আপনার গল্পটা জানলাম। আপনি যেভাবে আমার গোলগুলোর হিসাব রাখছেন, তা শুনে খুবই অবাক লেগেছে। আপনাকে অনেক ভালোবাসা এবং যা করছেন সে জন্য ধন্যবাদ। শুভকামনা রইল। দেখা হবে।’

এত বড় তারকার থেকে এমন শুভেচ্ছা পেয়ে যেন বিশ্বাসই করতে চাইলেন না ডন হেরনান। ভিডি দেখে কাঁদতে কাঁদতে এই শতবর্ষী বলেন,  ‘এটা যে মেসি, কেউ আমাকে এটা বিশ্বাস করতে বলো না।’ হেরনানকে বোঝানোর চেষ্টা করে তার নাতি বলতে থাকেন, ‘হ্যা এটা মেসিই। ভিডিওবার্তায় শুভেচ্ছা জানিয়েছে।’ হেরনান জানতে চান, ‘সে কোথায়? বাড়িতে?’ হুলিয়ানের জবাব ‘হ্যা, সে বার্সেলোনায়।’ একজন ভক্তের জীবনে এর চেয়ে আনন্দের মূহুর্ত আর কি হতে পারে।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button