খেলা

ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে বসছে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল

আগামী চার বছরের জন্য নতুন চুক্তি করার আগে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর সঙ্গে আলোচনা করে নিচ্ছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ টি-টোয়েন্টি (বিপিএল) গভর্নিং কাউন্সিল। এজন্য গতকাল বিসিবি কার্যালয়ে এসেছিল ঢাকা ডায়নামাইটস, রাজশাহী কিংস ও খুলনা টাইটানস। একে একে তারা বসবে বাকি ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গেও। আলোচনা শেষে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের কথা জানাবে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল।

বৈঠক শেষে গতকাল ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো জানিয়েছে বিসিবির সঙ্গে তাদের কী নিয়ে আলোচনা হয়েছে। ঢাকা ডায়নামাইটসের প্রধান নির্বাহী ওবায়েদ নিজাম বলেন, ‘আইকনদের নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই, এবার সব নতুন করে শুরু হবে। আমাদের থেকে কিছু উপদেশ চেয়েছিল তারা, তা আমরা লিখে নিয়ে এসেছিলাম। তারা শুনেছে, দেখি কী হয়।’

খুলনার ফ্র্যাঞ্চাইজির স্বত্বাধিকারী কাজী এনাম বলেন, ‘টুর্নামেন্ট টেকসই হোক। বছরের পর বছর অনেক দলের মালিক বদলায়। টুর্নামেন্ট কীভাবে বাণিজ্যিকভাবে টেকসই করা যায়, সামনে ফ্র্যাঞ্চাইজিরও যেন আয় থাকে। আবার বিসিবির আয় না কমে। রাজস্ব শেয়ারের প্রসঙ্গ এসেছে।’ এছাড়া খুলনায় ম্যাচ খেলতে চাইছে টাইটান্স।

রাজশাহীর দাবি অনেক পুরোনো। আগে থেকেই বিপিএলের রাজস্ব বা আয়ের ভাগ দাবি করে আসছে তারা। এ নিয়ে কিছু পরামর্শ দিয়েছে রাজশাহী। খুলনার মতো তারাও চায় বিপিএলের নিয়ম কদিন পর পর যেন না বদলায়।

বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল সবকিছু চূড়ান্ত করবে বাকি দলগুলোর সঙ্গে বসার পর। গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্যসচিব ইসমাইল হায়দার বলেন, ‘এ বছরের আমাদের পরিকল্পনা হলো, নিলাম হবে। প্লেয়ার্স বাই ড্রাফট হবে, একদম নতুন করে হবে। খেলোয়াড় ধরে রাখার প্রক্রিয়া চূড়ান্ত করিনি। করলে আপনাদের জানানো হবে।’

নতুন করে যে নিয়মগুলো করা হবে সেটি সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছে গভর্নিং কাউন্সিল। এবারও হোম-অ্যাওয়ে পদ্ধতিতে খেলার নিয়মটা চালু করা সম্ভব হচ্ছে না। আগের মতোই খেলা হবে মাত্র তিনটা ভেন্যুতে।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button