জাতীয়

বরিশালে ইউএনও-ওসির বিরুদ্ধে মামলা পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ

বরিশাল সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মুনিবুর রহমান, কোতয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নুরুল ইসলাম, সাব ইন্সপেক্টর ও ৫ আনসার সদস্যের নামে বরিশাল অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে নালিশি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রোববার (২২ আগস্ট) পৃথক দুটি নালিশি অভিযোগের মধ্যে সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র ও জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম খোকন কর্তৃক দায়েরকৃত নালিশি মামলায় ইউএনও, ওসি, সাব ইন্সপেক্টর এবং ইউএনওর দেহরক্ষী ৫ আনসার সদস্যসহ ৪০-৫০ অজ্ঞাতনামা রয়েছেন। অপরটি সিটি করপোরেশনের রাজস্ব কর্মকর্তা বাবুল হালদার বাদী হয়ে ইউএনও এবং তার দেহরক্ষী ৫ জন আনসার সদস্যসহ ৪০-৫০ জন অজ্ঞাতনামা রয়েছেন।

অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মাসুম বিল্লাহ নালিশি অভিযোগ (সিআর) দুটি আমলে নিয়ে আগামী ২৩ সেপ্টেম্বরের মধ্যে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) পুলিশ সুপারকে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

বরিশাল জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাইয়ুম খান কায়সার এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, তিনিসহ সিনিয়র আইনজীবী সাবেক এমপি তালুকদার মো. ইউনুস, দিলিপ ঘোষ, আফজালুল করিম ও আইজীবী সমিতির সভাপতি গোলাম মাসউদ বাবলু মামলা পরিচালনা করবেন।

রোববার শুনানির সময় আদালতকক্ষে প্রায় শতাধিক আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন বলে তিনি জানান। সকালে আদালতে এ অভিযোগ দায়ের করা হয় এবং বিকেল ৪টায় আদালতের বিচারক এ আদেশ দেন।

দুটি মামলার আবেদনে ইউএনও মুনিবুর রহমানের বিরুদ্ধে বিসিসির কাজে বাধাদান, বিনা উস্কানিতে বিসিসির কর্মচারীদের ওপর গুলিবর্ষণের নির্দেশ প্রদান, হামলা, গুলি বর্ষণের মাধ্যমে একাধিক ব্যক্তির অঙ্গহানি এবং ৩০ থেকে ৪০ জনকে আহত করার অভিযোগ আনা হয়েছে। মামলার আবেদনে ইউএনও ছাড়াও ওসি, এসআইসহ ১৮ আগস্ট রাতে তার বাসভবনে দায়িত্বরত আনসার সদস্যসহ আরও ৪০ থেকে ৫০ জন অজ্ঞাত ব্যাক্তিকে আসামি করা হয়েছে।

একই আদালতে রোববার সকালে আওয়ামী লীগের ২১ নেতা-কর্মীর জামিনের আবেদন জানান তাদের আইনজীবী। ১৮ আগস্ট রাতে ইউএনও মুনিবুর রহমানের বাসায় হামলা চেষ্টার ঘটনায় দায়ের করা পৃথক দুটি মামলায় তাদেরকে গ্রেফতার করে পুলিশ। শুনানি শেষে আদালত আবেদন নামঞ্জুর করে তাদেরকে জেল হাজতে রেখে সুচিকিৎসা দেওয়ার নির্দেশ দেন।

এ দিকে মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহর আহ্বানে কাজে ফিরেছে বরিশাল সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নকর্মীরা। শনিবার রাত সাড়ে ৮টা থেকে তারা তাদের নিয়মিত কাজ শুরু করে। শনিবার সন্ধ্যা ৭টায় নগরীর কালিবাড়ি রোডস্থ সেরনিয়াবাত ভবনে জরুরি সংবাদ সম্মেলনে পরিচ্ছন্নকর্মীদের কাজে ফেরার আহ্বান জানান বরিশাল সিটি করপোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ। তিনি প্রশাসনের প্রতি সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের হয়রানি না করারও আহ্বান জানান সংবাদ সম্মেলন থেকে।

এদিকে রাত সাড়ে ৮টার পরেই পরিচ্ছন্নকর্মীদের কাজে নামার চিত্র দেখা গেছে নগরীর বিভিন্ন এলাকায়। বিএম কলেজ রোডে কর্মরত বিপ্লব বলেন, আমরা কাজে নেমেছি গ্রেফতার আতঙ্কের মধ্যেও। নগরবাসী দুর্ভোগে রয়েছে, সেই কথা চিন্তা করে মেয়র স্যারের নির্দেশে কাজে নেমেছি সবাই। টানা দুইদিন পর কাজে নেমেছি আমরা। নগরীর সকল ময়লা পরিষ্কার করা হবে।

এর আগে বুধবার রাতে বরিশাল সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তাদের ওপর গুলি বর্ষণ ও পুলিশের হামলার পর কাজ বন্ধ করে দেয় করপোরেশনের পরিচ্ছন্নকর্মীরা। এতে করে পুরো নগরী ময়লার ভাগাড়ে পরিণত হয়। দুর্ভোগে পড়েন নগরবাসী।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button