খেলা

অধিনায়কত্ব হারানো নিয়ে যা বললেন সরফরাজের স্ত্রী

তীব্র সমালোচনার মুখে পাকিস্তানের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব হারিয়েছেন সরফরাজ আহমেদ। ওয়ানডে ফরম্যাটেও নেতৃত্ব হারানোর মুখে দাঁড়িয়ে তিনি। তবে তাতে হতাশ নন উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান। তার স্ত্রী সৈয়দা খুশবত জানিয়েছেন, পাকিস্তানের দুই ফরম্যাটে অধিনায়কত্ব খুইয়েছেন সরফরাজ। ক্রিকেটবিশ্বে বিষয়টি বড় খবর হয়েই এসেছে। তবে নেতৃত্ব হারিয়ে হতাশ নন তিনি।

নিরাশ নন খুশবতও। তিনি বলেন, এ ঘটনায় আমি কিংবা আমার স্বামী কেউই বিচলিত নই। এটা পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) সিদ্ধান্ত। আমরা সেই সিদ্ধান্তকে শ্রদ্ধা করি ও সম্মান জানাই। সরফরাজের স্ত্রী বলেন, তিন বছর আগেই আমরা জানতাম এমনটি হতে পারে। এমন নয় যে, তার পথ বন্ধ হয়ে গেল। সে বরং এখন চাপমুক্ত হয়ে খেলতে পারবে। ভালো পারফরম করতে পারবে।

রাগ-ক্ষোভ ও অভিমানে সরফরাজ কী অবসর নিয়ে ফেলবেন? জবাবে সাংবাদিকদেরই প্রশ্ন ছুড়ে দেন খুশবত। এ ক্ষেত্রে ভারতের সাবেক অধিনায়ক এবং বর্তমান দলের অন্যতম সদস্য মহেন্দ্র সিং ধোনির প্রসঙ্গ টানেন তিনি। তার প্রশ্ন- কেন সরফরাজ অবসর নেবে? তার বয়স এখন মাত্র ৩২। ধোনির বয়স কত? ৩৮ বছর। সে কী অবসর নিয়েছে?

খুশবতের বিশ্বাস, তার স্বামী দারুণভাবে ফিরে আসবে। সে একজন যোদ্ধা- ফিরবেই। ইংল্যান্ড ওয়ানডে বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে সেমিফাইনালে তুলতে পারেননি সরফরাজ। তখন থেকেই তার নেতৃত্ব ও পারফরম্যান্স নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। বিশেষ করে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে হাই তোলা নিয়ে তুমুল সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি।

তা সত্ত্বেও ঘরের মাঠে শ্রীলংকার বিপক্ষে দলনায়ক থাকেন সরফরাজ। তার অধীনেই তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে লংকানদের ধবলধোলাই করেন স্বাগতিকরা। তবে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজে আনকোরা দলটির কাছে হোয়াইটওয়াশ হন তারা। সফরকারীদের বিপক্ষে দুই সিরিজে তার পারফরম্যান্সও ছিল বিশ্রি। প্রয়োজনের সময় চরম দায়িত্বজ্ঞানহীনতার পরিচয় দেন তিনি। এ কারণে তাকে অধিনায়কত্বের দায়িত্ব থেকে সরাতে চান পাকিস্তানের বর্তমান কোচ মিসবাহ-উল হক। শেষ পর্যন্ত হারাতে হলো সরফরাজকে।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button