খেলা

৯১ বছরের রেকর্ড ভাঙলেন স্টোকস

অবিশ্বাস্য ব্যাটিং বেন স্টোকসের। যে ম্যাচটি নিশ্চিত হেরে যাচ্ছিল ইংল্যান্ড, একেবারে খাদের কিনারা থেকে টেনে তুলে সেই দলটিকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেয়ার ঘটনা খুব বিরল। অথচ পরপর দুই মাসে তেমনই দুটি ঘটনার জন্ম দিলেন স্টোকস।

বিশ্বকাপের ফাইনালে নিউজিল্যান্ডের কাছে যেখানে হেরে যাচ্ছিল ইংল্যান্ড, সেখানে স্টোকসের দৃঢ়তা জয়ের পথ দেখাল ইংলিশদের। এবার লিডসের হেডিংলিতে অ্যাশেজের তৃতীয় টেস্টে একই ঘটনার জন্ম দিলেন স্টোকস। নিশ্চিত হেরে যাওয়া ম্যাচটিতে ১৩৫ রানের অতি মানবীয় ইনিংস খেলে জয় এনে দিলেন ইংল্যান্ডকে।

১০ম উইকেট জুটিতে জ্যাক লিচকে নিয়ে গড়লেন ৭৬ রানের জুটি। যার মধ্যে একাই ৭৪ রান করলেন স্টোকস। এমন অবিশ্বাস্য এরবং শ্বাসঃরূদ্ধকর ব্যাটিং কে কবে দেখেছে? স্টোকস যা উপহার দিচ্ছেন, তা রীতিমত অক্ষয় হয়ে থাকবে ক্রিকেটের ইতিহাসের পাতায়।

৩৫৯ রানের বিশাল লক্ষ্য পাড়ি দিতে নেমে রীতিমত রেকর্ডই গড়েছে ইংল্যান্ড। শুধু রেকর্ড গড়া নয়, ৯১ বছর আগে গড়া রেকর্ড ভেঙেছে তারা। চতুর্থ ইনিংসে ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ ৩৩২ রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড ছিল। তাও ১৯২৮ সালে মেলবোর্নে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে।

৯১ বছর পর লিডসের হেডিংলিতে এসে স্টোকসের ব্যাটে ভর করে ৩৩২ রানের সেই রেকর্ড ভেঙে ৩৬২ রান করে ম্যাচ জিতলো ইংল্যান্ড।

এছাড়া আর যেসব রেকর্ড গড়েছেন স্টোকস, সেগুলোও তুলে ধরা হলো পাঠকদের উদ্দেশ্যে…।

১ : টেস্ট ক্রিকেটের ১০ ইনিংস জুটিতে অপরাজিত ৭৬ রানের বেশি আর মাত্র একটি রেকর্ড জুটি রয়েছে। তাও চলতি বছরে। এ বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে ডারবানে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১০ম উইকেটে বিশ্ব ফার্নান্দোকে সঙ্গে নিয়ে অপরাজিত ৭৮ রানের জুটি গড়েছিলেন কুশল পেরেরা। ৯ উইকেটে ২২৬ রান থেকে ৩০৪ রান করে দলকে জিতিয়েছেন পেরেরা এবং ফার্নান্দো। স্টোকস আর জ্যাক লিচ মিলে ৭৬ রানে জুটি গড়ে জেতালেন দলকে।

৩৫৯ : নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসে চতুর্থ ইনিংসে সবচেয়ে বেশি রান তাড়া করে জেতার রেকর্ড গড়েছে ইংল্যান্ড। বেন স্টোকসের অবিশ্বাস্য ১৩৫ রানের ওপর ভর করে ১ উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয় ইংল্যান্ড। ১৯২৮ সালে মেলবোর্নে ৩৩২ রান করে জিতেছিল ইংলিশরা। যা ছিল এতদিন তাদের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় ব্যবধানে জয়ের রেকর্ড।

৬ : টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে অস্ট্রেলিয়াই ৬টি ম্যাচ এমন পরিস্থিতিতে এমন (১ উইকেট) ব্যবধানে হেরেছিল। টেস্টের ইতিহাসে ১ উইকেটের ব্যবধানে হারের ঘটনা আছে মোট ১৪টি। এর মধ্যে প্রায় অর্ধেক রেকর্ডই অস্ট্রেলিয়ার। ১৯৯০ সালের পর তারা ১ উইকেটে হেরেছে ৪টি ম্যাচে।

৬৭ : ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংসের রান। ক্রিকেট ইতিহাসে ইংল্যান্ডের এই ম্যাচ ছাড়া এর আগে আরও তিনটি ম্যাচের প্রথম ইনিংসে এর চেয়েও কম রান করে শেষ পর্যন্ত ম্যাচ জয়ের ঘটনা ঘটেছিল। যার প্রত্যেকটি ঘটনা ১৮৮২ থেকে ১৮৮৮ সালের মধ্যে। যার দুটি জিতেছিল অস্ট্রেলিয়া এবং একটি জিতেছিল ইংল্যান্ড।

২ : চতুর্থ ইনিংসে ইংল্যান্ড জিতেছে এবং ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান করেছে- এমন ইনিংস বেন স্টোকসের চেয়ে আরও বড় দুটি রয়েছে। ২০০১ সালে এই একই (লিডস) মাঠে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ১৭৩ রান করেছিলেন মার্ক বুচার। ১৮৯৫ সালে ১৪০ রান করেছিলেন জ্যাক ব্রাউন।

৭৪ : ইংল্যান্ডের ৯ম উইকেট পড়ার পর বেন স্টোকস একাই করেন ৭৪ রান। জ্যাক লিচকে নিয়ে তিনি গড়েছিলেন মোট ৭৬ রানের জুটি। এর মধ্যে লিচ করেন কেবল ১ রান। এর মধ্যে স্টোকস খেলেন ৪৫ বল এবং জ্যাক লিচ খেলেন ১৭ বল।

৮ : বেন স্টোকস একাই মারেন ৮টি ছক্কা। চতুর্থ ইনিংসে এটা হচ্ছে তৃতীয় সর্বোচ্চ ছক্কা মারার ঘটনা। এর আগে নিউজিল্যান্ডের নাথান অ্যাসল ১১টি এবং টিম সাউদি এক ম্যাচের চতুর্থ ইনিংসে মারেন ৯টি ছক্কা। তবে নিউজিল্যান্ডের ওই দুই ব্যাটসম্যানই তাদের ওই দুই টেস্টে হেরে গিয়েছিল। কিন্তু হারেননি বেন স্টোকস।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button