রাজশাহী বিভাগ

নির্বাচনী সহিংসতায় তাঁতী লীগ নেতার মৃত্যু

বগুড়ার কাহালুতে নির্বাচনী সহিংসতায় আহত তাঁতী লীগ নেতা ফারুক হোসেন (৪৫) মারা গেছেন। তিনি ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত রোববার মারা যান।

সোমবার দুপুরে কাহালু কেন্দ্রীয় ঈদগাহ্ মাঠে জানাজা শেষে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, কাহালু সদর ইউনিয়নে গত ২৬ ডিসেম্বর নির্বাচন ছিল। গত ১৫ ডিসেম্বর রাতে কাহালু উপজেলার জয়তুল গ্রামে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী পিএম বেল্লাল হোসেনের কয়েকটি মোটরসাইকেল ভাংচুর করা হয়। এর জের ধরে ওই রাতেই কাহালু মাদ্রাসার কাছে রেললাইনের উপর আওয়ামী লীগ প্রার্থী এনামুল হক মিঠু ও বিদ্রোহী প্রার্থী পিএম বেল্লালের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

এ সময় এনামুল হক মিঠুর সমর্থক স্থানীয় তাঁতী লীগ নেতা ফারুক হোসেন ছুরিকাহত হন। তাকে প্রধান বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে ২৯ ডিসেম্বর ফারুককে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছিল। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার রাতে তিনি মারা যান। ওই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী পিএম বেলাল চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

কাহালু থানার ওসি আমবার হোসেন জানান, ফারুক হোসেন রোববার ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে মারা গেছেন। নির্বাচনের আগের ওই হামলার ঘটনায় মামলা হয়নি। এছাড়া ফারুক মারা যাওয়ার ঘটনায় সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত তার পরিবারের কেউ হত্যা মামলা দেননি।

আরো দেখুন

সম্পর্কিত প্রবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button